দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ২৮ মার্চ বৃহস্পতিবার ঢাকার বনানীস্থ এফআর টাওয়ারে অগ্নিকান্ডে আব্দুল্লাহ্ আল মামুন (৪৭)  নামের এক ব্যক্তি নিহত হন (ইন্না…….. রাজিউন)।

তিনি এফআর টাওয়ারে অবস্থিত হ্যারিটেজ এয়ার লাইন্সের চীফ একাউন্টেন্ট হিসেবে নিওজিত ছিলেন।

পারিবারিক সুত্রে জানান হয়, মরহুম আব্দুল্লাহ্ আল মামুনের প্রথম নামাজে জানাজা সকাল ১১টায় দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার কালিয়াগঞ্জ সংলগ্ন মিরাবনে অনুষ্ঠিত হবে।

মরহুমের দ্বিতীয় নামাজে জানাজা দক্ষিণ বালুয়াডাঙ্গা মিনার জামে মসজিদের ঈদগাহ মাঠে বাদ জুম্মা দুপুর ২ টায় অনুষ্ঠিত হবে এবং জানাজা শেষে দিনাজপুর শহরের ফরিদপুর কবরস্থানে পিতার পাশে মরহুমকে চিরশাহিত করা হবে।

শেষ পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী লাশ পোস্টমর্টেম করার পর তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

মরহুমের আত্মিয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও শুভাকাঙ্খীসহ সকলকে নামাজে জানাজা ও দাফন কার্যে উপস্থিত থাকার জন্য পারিবারিকভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

মরহুম আব্দুল্লাহ্ আল মামুন দিনাজপুর শহরের পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা অন্ধহাফেজ মোড় নিবাসী প্রাক্তন ফরেস্ট অফিসার মরহুম আবুল কাশেমের দ্বিতীয় পুত্র। আব্দুল্লাহ আল মামুন আজ ঢাকার বনানীর এফআর টাওয়ারে হ্যারিটেজ এয়ার কার্যালয়ের চীফ একাউন্টেন্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মরহুম মামুন দিনাজপুর শহরের স্কুল জীবন সম্পন্ন করে ভারতে উচ্চ শিক্ষা লাভ করে তিনি বিভিন্ন অফিসে অতন্ত সুনাম ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি স্ত্রী, দুই কন্যা, মা, চার ভাই-বোন, অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে অগ্নিদগ্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন। উল্লেখ্য, জাতীয় সাংবাদিক সোসাইটির চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের এডভোকেট এম এ মজিদ মরহুম আব্দুল্লাহ্ আল মামুনের ভগ্নিপতি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য