মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) থেকেঃ পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার চেংটি হাজেরাডাঙ্গা ইউনিয়নের বাগদগ গ্রামে লিপি রানী(২৮) নামে এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে দেবীগঞ্জ থানার পুলিশ।

পরিবারে দাবী সে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার বিকালে নিজ বাড়ীতে। দেবীগঞ্জ থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বুধবার পঞ্চগড় সদর আধুনিক সদস হাসপাতালে প্রেরন করেছে।

পারিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বোদা উপজেলার পাঁচপীর ইউনিয়নের বৈরাতী মাষানপাড়া গ্রামের মহেন্দ্র নাথ বর্মনের কন্যার সঙ্গে দেবীগঞ্জ উপজেলার চেংঠি হাজরাডাঙ্গা ইউনিয়নের বাগদহা গ্রামের দীন মোহন এর পুত্র বিমল বর্মন সঙ্গে বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর নব দম্পতিদের মাঝে ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকে।

লিপি রানীর পিতা অভিযোগ করে বলেন তার মেয়েকে গত মঙ্গলবার বিকেলে পারিবারিক কলহের এক পর্যায়ে নির্যাতন করে মেরে ফেলে গলায় রশি পেচিয়ে রাখা হয়েছে।

স্বামীর পরিবার সে নিজে গলায় ফাস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার চালিয়েছে। এ ব্যাপারে দেবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রবিউল হাসান সরকার জানান এক গৃহবধুর গলায় ফাস লাগানো লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন প্রেরন করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোট এলে আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ বিষয়ে থানায় একটি ইউ’ডি মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় মেয়ের পরিবারের পক্ষে মামলার প্রস্তুতি চলছে তাদের সাথে কথা জানা গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য