বর্ণবাদ বন্ধে মঙ্গলবার একটি প্রস্তাব পাস করেছে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট। এতে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং এর সদস্য দেশগুলোকে আফ্রিকান বংশোদ্ভূতদের জন্য বর্ণবাদবিরোধী নীতি তৈরির আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রস্তাবের পক্ষে ভোট পড়ে ৫৩৫টি। বিপক্ষে ভোট পড়ে ৮০টি। ভোটদান থেকে বিরত ছিলেন ৪৪ জন।

প্রস্তাবে শিক্ষা, হাউজিং, স্বাস্থ্য, ফৌজদারি বিচার, রাজনৈতিক অংশগ্রহণ এবং অভিবাসনের মতো ক্ষেত্রগুলোতে একটি সমন্বিত দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে নীতি প্রণয়ণের জন্য ইইউ-এর সদস্য দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

এই প্রস্তাব ইউরোপীয় ঔপনিবেশিকতার নামে অতীতের মানবতাবিরোধী অপরাধের বিষয়ে দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনে ইউরোপীয় দেশ ও প্রতিষ্ঠানগুলোকে উৎসাহিত করবে।

আফ্রিকা ভীতি বা আফ্রিকা বিদ্বেষ থেকে সংঘটিত হামলার মতো ঘটনাগুলো স্বীকার করে নিতেও সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রস্তাবে এ ধরনের হামলাকে বর্ণবাদী, বৈষম্যমূলক এবং বিদেশিদের প্রতি অহেতুক ভীতি হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

পুলিশ হেফাজতে আফ্রিকান বংশোদ্ভূতদের সঙ্গে যেন বাজে আচরণ করা না হয় তার ওপরও জোর দিয়েছে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট। এছাড়া প্রস্তাবে বর্ণবাদী সন্ত্রাস মোকাবিলারও তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের এমপিরা বলছেন, সাবেক উপনিবেশগুলো থেকে নিয়ে আসা নানা নিদর্শন ওইসব দেশগুলোকে ফিরিয়ে দিয়ে এর জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়া উচিত। সূত্র: আনাদোলু এজেন্সি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য