দিনাজপুর সংবাদাতাঃ সারা দেশের ন্যায় দিনাজপুরেও মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৯ পালিত হয়েছে। বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় জেলাবাসি স্মরন করেছে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের।

২৬ মার্চ উপলক্ষে সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচী গ্রহণ করে। এসব কর্মসুচীর মধ্যে ছিল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ, আলোচনা সভা, রক্তদান কর্মসূচী, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, মসজিদে মসজিদে বিশেষ মুনাজাত ও অন্যান্য উপসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা, হাসপাতাল-কারাগার, ভবঘরে কেন্দ্রসমূহে ও শিশু সদনে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন ইত্যাদি।

২৬ মার্চ মঙ্গলবার দিবসের শুরুতে সকাল ৬টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থিত শহীদ স্মতিস্তম্ভে ফুলের তোড়া দিয়ে শহীদদের প্রতি প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাস্সুম জুঁই।

এছাড়া জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি ও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাস্সুম জুঁই জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে এবং চেহেলগাজী মাজারে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম ও পুলিশ সুপার সৈয়দ আবু সায়েমসহ জেলা প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি মহারাজা গিরিজানাথ স্কুল, পুলিশ লাইন প্রাঙ্গনে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পন করেন।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থিত শহীদ স্মতিস্তম্ভে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপির শ্রদ্ধা নিবেদনের পর জেলা আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. আজিজুল ইমাম চৌধুরী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতৃবৃন্দ ও জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এর পর শদ্ধা নিবেদন করেন দিনাজপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র আহাম্মেদুজ্জামান ডাবলু’র নেতৃত্বে পৌরসভা কাউন্সিলরবৃন্দ, জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, দিনাজপুর প্রেসক্লাব, দিনাজপুর সাংবাদিক ইউনিয়ন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, মহিলালীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মী। এ ছাড়া চেহেলগাজী মাজারে বিভিন্ন সংগঠন পুস্পাঞ্জলি অর্পনের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি শদ্ধা নিবেদন করেন।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গোর-এ-শহীদ বড়মাঠে বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। কুচকাওয়াজে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা বিভিন্ন শারিরীক কসরত প্রদর্শন করে। জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ অন্যান্য সধীবৃন্দ কুচকাওয়াজ উপভোগ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য