বিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের বিরলে কড়া সম্প্রদায় ও আদিবাসীদের উপর ভুমি দস্যুদের সন্ত্রাসী হামলা-মিথ্যা মামলা এবং বাপ-দাদাদের জমি থেকে উচ্ছেদ এর বিরুদ্ধে জনসমাবেশ ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় বিরল প্রেস ক্লাব চত্বরে জনসমাবেশ ও প্রতিবাদ সভাটি অনুিষ্ঠত হয়। পরে পৌরশহরে একটি বিক্ষোভ মিছিল শেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে ৭ দফা দাবী সম্বলিত একটি স্মারকলিপি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রদান করা হয়।

জনসংগঠন ঐক্য পরিষদ ও জাতীয় আদিবাসী পরিষদ এর আয়োজনে প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্য রাখেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবিন্দ্র নাথ সরেন।

জনসংগঠন ঐক্য পরিষদের সভা-প্রধান ও উপজেলা ভূমিহীন সমন্বয় কমিটির সভাপতি মোঃ বছির উদ্দীনের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ভুক্তভোগী কৃষ্ণ কড়া।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সিডিএ’র নির্বাহী পরিচালক শাহ-ই-মবিন জিন্নাহ, প্রেস ক্লাবের সভাপতি এম এ কুদ্দুস সরকার, গণকল্যাণ প্রচেষ্টা’র নির্বাহী পরিচালক খয়রাত হোসেন, আদিবাসী ছাত্র পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল টুডু, আদিবাসীদের নারী নেত্রী শিবানী উড়াঁও, বিরল উপজেলা আদিবাসী সমিতির সভাপতি হারুণ এক্কা, বোচাগঞ্জ উপজেলা ওয়াচ মাইনরোটির সভাপতি অধ্যাপক সুকমল রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক অভিনাশ রায়, সাবেক ছাত্রনেতা এস এম চন্দন, আদিবাসী নেতা জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৬ মার্চ বুধবার সকাল ১১টায় বিরলের রাণীপুকুর ইউনিয়নের হালজায় গ্রামের (ঝিনাইকুড়ি) গ্রামে দেশের বিলুপ্ত প্রায় কড়া সম্প্রদায়ের উপর একই এলাকার ভূমিদস্যু ও প্রভাবশালী সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য মৃত আবদুল হান্নানের পুত্র আব্দুল্লাহ আল কাফী, কামরুজ্জামান, কিবরিয়া ও মৃত মারফত আলীর পুত্র আবদুল মান্নানসহ প্রায় ৪০-৫০ জনের একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী দল ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসটাসহ কড়া সম্প্রদায়ের বসত বাড়ী ভাংচুর এবং তাদের লোকজনের উপর হামলা চালায়।

এতে কড়া সম্প্রদায়ের বাড়ী ঘড়ের ব্যাপক ক্ষতিসহ গুরুত্বর আহত হয় সাতোল কড়া, কেদু কড়া, কোলোকড়া, মিরণ কড়া ও মালন কড়া ৫০ সয্যা বিশিষ্ট বিরল উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি হয়।

প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, এখানে মাত্র ১৮ টি পরিবার! সেই ১৮টি পরিবারের নিরাপত্তা দিতে আমরা বার বার ব্যর্থ হচ্ছি। দেশের বিলুপ্ত প্রায় এই কড়া সম্প্রদায়ের উপর হামলা করা হয়েছে। মামলা করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন সহযোগিতা করেছেন। থানা পুলিশ প্রশাসন হামলাকারীদের ১ জনকে আটক করেছেন। তাপরও বলবো এটা যথেষ্ট নয়। আমাদের প্রত্যেকের অবস্থান থেকে আরো অনেককিছু করার আছে।

অবিলম্বে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে আইনানুগ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। অন্যথায় আদিবাসী সমাজ আগামীতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ব্যাপক আন্দোলন ও সংগ্রামে ঝাপিয়ে পড়ার হুশিয়ারী প্রদান করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য