মো: জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুরে বিয়ের তিন মাসের মাথায় এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

২৩ মার্চ শনিবার সকালে সৈয়দপুর পৌর এলাকার ১ নং ওয়ার্ড ঢেলাপীর উত্তরা আবাসনের পূর্ব পার্শে পুলপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। মৃত. গৃহবধুর নাম হাবিবা (২০)। সে ওই এলাকার মফিজুল ইসলামের (২২) স্ত্রী।

জানা যায়, বিগত বছরের ডিসেম্বর মাসে নীলফামারী সদরের মার্কাস মসজিদ পাড়ার হারুন মোল্লার মেয়ে হাবিবার সাথে বিয়ে হয় সৈয়দপুর পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের মৃত. আবুল হাসানের ছেলে মফিজুল ইসলামের সাথে।

হাবিবার চাচী গোলাপী জানান, বিয়ের পর থেকে হাবিবাকে তার শ্বশুড় বাড়ির লোকজন মারধর করতো যৌতুকের জন্য। এ নিয়ে হাবিবা তার বাবার কাছে বেশ কয়েকবার অভিযোগ করেছে। কিন্তু তাকে এভাবে মেরে ফেলা হবে তা তারা ভাবতেও পারেনি।

এদিকে মফিজুলের পরিবারের দাবি হাবিবা আত্মহত্যা করেছে। গত ২২ মার্চ দিবাগত রাতের যে কোন এক সময় সে বাড়ির বাইরে গোয়াল ঘরে গিয়ে তীরের সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে। হাবিবা কেন আত্মহত্যা করেছে তা তারা জানেনা। তবে তারা জানায়, হাবিবা বিয়েতে রাজি ছিলনা। সম্ভবত তার অন্য কোনখানে সম্পর্ক ছিল।

গৃহবধুর আত্মহত্যা খবর পেয়ে সৈয়দপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছলে সুরতহাল করলেও হাবিবার পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না থাকায় পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানা যায়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য