আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দর এলাকায় যশোদা পরিবহন নামের একটি বাস কাউন্টারে এক নারী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার(২১মার্চ) সকালে পাটগ্রামের বুড়িমারী ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলামকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ।

এর আগে ধর্ষণের শিকার ওই নারীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার বাড়ি শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায়। জানা গেছে। বুড়িমারী-ময়মনসিংহ রুটে চলাচল করে যশোদা পরিবহনের বাস।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, দিন তিনেক আগে ভারত যাওয়ার উদ্দেশ্যে শেরপুর থেকে পাটগ্রামের বুড়িমারী স্থলবন্দরে আসে ওই নারী। এরপর ইমিগ্রেশনে তার কাগজপত্র প্রস্তুত করে দেয়ার নামে ওই কাউন্টারের একটি একটি কক্ষে আটকে রাখা হয়।

পরে রাতে ওই নারীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে বুড়িমারী ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম, স্থানীয় নুরুন্নবী (২৮) ও আনছারুল ইসলাম ওরফে ভোম্বল (৩০)। সেখানে টানা দুই দিন গণধর্ষণের শিকার হয় ওই নারী।

এই অবস্থায় বৃস্পতিবার সকালে খবর পেয়ে পাটগ্রাম থানা পুুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই নারীকে উদ্ধার করে। পাশাপাশি ধর্ষণের অভিযোগে বুড়িমারী ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলামকে আটক করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য