পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেছেন, নদী ভাঙন ঠেকাতে এবং নদীর নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে সরকার নদী খনন ও তীর রক্ষা কর্মকাণ্ডে ২২শ’ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে কুড়িগ্রামে নদী খননের কাজ শুরু হয়েছে। এটি সম্পন্ন করা গেলে আবাদি জমি ভাঙন বন্ধ হবে এবং কৃষি কর্মকান্ডে কৃষক উপকৃত হবে।

বুধবার কুড়িগ্রামে নদী ভাঙন কবলিত এলাকা পরির্দশনে এসে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার বলদমারা, রাজিবপুর উপজেলার মোহনগঞ্জ এবং উলিপুর উপজেলার সাহেবের আলগা ইউনিয়নে ব্রহ্মপূত্র নদ বেষ্টিত ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।

এ সময় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন, কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য এম এ মতিন উপস্থিত ছিলেন। বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায় স্পিডবোট যোগে জাহিদ ফারুক এসব এলাকা পরিদর্শন শেষে পথসভায় অংশ নেন।

পরে সাহেবের আলগা নদীঘাট এলাকায় সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী।

কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন, কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য এম এ মতিন, পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম, উলিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন মন্টু, রৌমারী উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল্লাহ, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য