দিনাজপুরে অটিস্টিক ছাত্রের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন DDDসংবাদ সম্মেলনঃ দিনাজপুর শহরের বাহাদুর বাজারে আদর্শ কলেজ ছাত্র অটিস্টিক আদিব রহমান রিভুর উপর হামলার প্রতিবাদে ও সন্ত্রাসীদের বিচারের দাবীতে সাধারণ শিক্ষার্থী ও পরিবারের আয়োজনে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ১টায় দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন অটিস্টিক শিক্ষার্থীর পিতা এখলাস-উর রহমান কিউবা। তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার ছেলে আদিব রহমান রিভু দিনাজপুর আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী।

আমার ছেলে কিছুটা অটিস্টিক। কিন্তু চলাফেরা করে ওর কলেজ ও পরিচিতি জনের সঙ্গে ঘোরা ফেরা করে। কিন্তু শহরের চিহ্নিত সন্ত্রাসী মেহেদী হাসান প্রিন্স ও ইরফান খান পাপ্পু আমার ছেলেকে সব সময় শারীরিক ও মানসিক ভাবে উত্যোক্ত করত।

গত ১৭ মার্চ রাত সাড়ে ১০টায় দিনাজপুর শহরের বাহাদুর বাজার মাসুম হোটেলের সামনে এইখাবে অশালীন ভাষায় উত্যক্ত করলে আমার ছেলে রিভু তাদেরকে বলে, “তোমরা তো আমার বন্ধু নও, কেন আমার সাথে এরূপ ব্যবহার কর”। এই জবাব শুনে সন্ত্রাসীরা সংঘবদ্ধ হয়ে আমার ছেলে রিভুর উপর হামলা করে ও ধারালো অস্ত্র আঘাত করে।

হামলার ফলে পিঠে, হাতে, মুখে প্রচন্ড আঘাতপ্রাপ্ত হয়। বর্তমানে আমার ছেলে আঘাত সহ্য করলেও মানসিকভাবে ভীষণ ভেঙ্গে পড়েছে। সে একটা ভীত হয়েছে যে, ওই ঘটনার পর থেকে কলেজে ও প্রাইভেটে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

বিষয়টি গত ১৭ মার্চ রাতেই কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করলে তিনি হামলাকারীদের গ্রেফতারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করে নি কোতয়ালী থানা পুলিশ। সন্ত্রাসী মেহেদী হাসান প্রিন্স আমাকে ফোনে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিচ্ছে। যাতে আমি কোতয়ালী থানা থেকে অভিযোগ তুলে নেই।

পুলিশ সুপারসহ প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট তিনি অটিস্টিক কলেজ পড়–য়া ছেলের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবী জানান। সংবাদ সম্মেলনে রিভুর মা লায়লা শামীমা স্বপ্না ও ভাই আন্দালিব রহমান রম্য উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আয়োজনে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আদর্শ কলেজের ৩য় বর্ষের ছাত্র আদিব রহমান রিভু অটিস্টিক। গত ১৭ মার্চ রাত সাড়ে ১০টায় দিনাজপুর শহরের বাহাদুরবাজার এলাকায় মাসুম হোটেলের সামনে শহরের চিহ্নিত সন্ত্রাসী মেহেদী হাসান প্রিন্স ও ইরফান আল পাপ্পুসহ তার সহযোগীরা রিভুকে মারধর করে।

এসময় স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসী পালিয়ে যায়। পরবর্তীকে তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে বাড়ীতে এনে রাখা হয়েছে। গত ১৭ মার্চ রাতেই পিতা দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় অভিযোগ দায়ের করে। কিন্তু অটিস্টিক শিক্ষার্থীর উপর হামলার ২দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ কোন সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করতে পারেনি। অবিলম্বে হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবী জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য