বর্ণাঢ্য আয়োজনে দিনাজপুর জেলায় বঙ্গবন্ধুর ৯৯তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত DDDদিনাজপুর সদরঃ দিনাজপুরে বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনা সভা, কেক কাটাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি মধ্যে দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ পালিত হয়েছে।

১৭ মার্চ রবিবার সকাল ৯টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে একাডেমি স্কুল থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহর প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্ত্বরে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুর সড়ক বিভাগ, গণপূর্ত অধিদপ্তর, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ, জেলা শিক্ষা অফিস, টেক্সটাইল ইনস্টিউট, দিনাজপুর জিলা স্কুল, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়, শহর আওয়ামীলীগ, বিএমএ দিনাজপুর জেলা শাখা, দিনাজপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল, জেলা পরিষদ, দিনাজপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, জেলা সিভিল সার্জন, কেআইবি দিনাজপুর সহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি অফিস সংস্থা সমূহ পৃথক পৃথক ভাবে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করে।

এর পর দিনাজপুর সদর হাসপাতাল সম্মেলন কক্ষে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল এর আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা, কেক কাটা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

হাসপাতাল তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ মোঃ আহাদ আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস, বিএমএ দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডাঃ বি কে বোস, স্বাচিব জেলা শাখার সভাপতি ডাঃ শহিদুল ইসলাম খান, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আরোজ উল্লাহ্, ডাঃ মোঃ ওয়াহেদ আলী, ডাঃ রইচ উদ্দীন, আরএমও ডাঃ পারভেজ সোহেল রানা, প্রমূখ।

এছাড়াও জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্ত্বরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলম এর সভাপতিত্বে দিবসটি উপলক্ষে জেলা পর্যায়ে রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা , আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

মুক্তিযোদ্ধাঃ দিনাজপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক কমান্ডার সৈয়দ মোকাদ্দেস হোসেন বাবলু বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব ইতিহাসের অন্যতম মহানায়ক। সেরা মুক্তি সংগ্রামী, সেরা রাষ্ট্রনায়ক। জননন্দিত নেতা হিসেবে তাঁর তুলনা ছিলেন তিনি নিজেই। দেশের মাটি ও মানুষের প্রতি বঙ্গবন্ধুর ভালোবাসা ও দায়বোধ তাকে মহিরুহে পরিণত করেছিল। ব্যক্তি শেখ মুজিব হয়ে উঠেছিলেন বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু। বাংলাদেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব এবং অস্তিত্বের শত্রুরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতাকেই হত্যা করতে চেয়েছিল।

১৭ মার্চ রোববার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে দিনাজপুর একাডেমী প্রাঙ্গণ থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হওয়ার পূর্বে আলোচনা সভায় বীর মুক্তিযোদ্ধা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সৈয়দ মোকদ্দেস হোসেন বাবলু এ কথা বলেন।

জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম এর সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. বজলুর রশিদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফরিদুল ইসলাম, নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মো. ইমদাদ সরকার, সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী অফিসার মো. ফিরুজুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ্যাড. মো. আব্দুল লতিফ, মো. বজলুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারুকুজ্জামান চৌধুরী মাইকেল, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. লোকমান হাকিম প্রমুখ।

হাবিপ্রবিঃ ব্যাপক উৎসাহ, উদ্দীপনা ও বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মধ্য দিয়ে রবিবার হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপিত হয়েছে।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল ৯টায় হাবিপ্রবি’র ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।
ক্রমান্বয়ে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার নেতৃবৃন্দ, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ও কর্মচারিগণ।
ভাইস-চ্যান্সেলর শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে জাতির জনকের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সবাইকে নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের, শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী, কর্মকর্তা, ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার নেতৃবৃন্দ, কর্মচারী এবং হাবিপ্রবি স্কুলের শিক্ষক ও শিশু কিশোররা উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে দিবসের অন্য কর্মসূচির মধ্যে ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার কেক কাঁটা ও শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযেগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযেগিতার উদ্বোধন ও বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম। বাদ যোহর বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

দিনাজপুর প্রেসকাবঃ নৌ-প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বলেছেন, যারা বঙ্গবন্ধু চিনে না তারা নিজের জন্মের সম্পর্কে জানে না। বঙ্গবন্ধুকে বাদ দিয়ে কিছু চিন্ত করা যায় না। বাঙালী, বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু তিনটি শব্দ মিলে একটি বাক্য। এই তিনটি শব্দের মধ্যে যদি ১টি বাদ তাহলে গোটা শব্দটি অপরিপূর্ণ।

আজ রোববার (১৭ মার্চ) দুপুর ১টায় দিনাজপুর প্রেসকাবের এম. আব্দুর রহিম মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আয়োজিত “বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ” শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথাগুলো বলেন।

প্রেসকাবের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি নৌ প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে তৎকালীন পাকিস্তানী সরকার প্যারোলে মুক্তি দিতে চেয়েছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধু প্যারোলে মুক্তি নেন নি। বর্তমানে একজন রাজনীতিবীদ জেল হাজতে গেলে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা করার জন্য দাবী তোলেন। বঙ্গবন্ধু মানে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর সাথে কারো কখনও তুলনা করা যায়। বঙ্গবন্ধুর মত কোন নেতা এই দেশে আর আসবে না। ৬ দফা দাবী মানার পরিবর্তনে বঙ্গবন্ধুকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কখনই ক্ষমতার লোভ করেন নাই। তাই তিনি সেই প্রস্তাব ফেরত দিয়েছেন।

বঙ্গবন্ধুর আমলে সাংবাদিকদের অবদানের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন মিডিয়া ব্যক্তি। বঙ্গবন্ধুকে সাংবাদিকরা যথেষ্ট সহযোগিতা করেছেন। বঙ্গবন্ধুর মত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সাংবাদিকদের সহযোগিতা করার জন্য আহ্বান জানান।

দিনাজপুর জেলার হারিয়ে যাওয়া নদী খননের ব্যাপারে তিনি বলেন, জেলার ৪টি প্রধান নদী খননের জন্য ইতিমধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে একটি প্রস্তাবনা তৈরী করা হয়েছে। খুব শিঘ্রই জেলা শহরের বুক চীরে অতিবাহিত হওয়া পুনর্ভবা নদীর প্রায় ৪০ কিলোমিটার খননের কাজ শুরু হবে।

প্রেসকাবের নির্বাহী সম্পাদক একরাম হোসেন তালুকদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর-১ আসনের এমপি মনোরঞ্জনশীল গোপাল, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরী, সিনিয়র সহ-সভাপতি এ্যাডঃ মোঃ আব্দুল লতিফ, সাবেক হুইপ মিজানুর রহমান মানু, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি নুরুজ্জামান জাহানী, বিএমএর সাধারণ সম্পাদক ডাঃ বি কে বোস, সদর উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ ইমদাদ সরকার, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ও প্রেসকাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল।

কাহারোলঃ গতকাল রবিবার ১৭ মার্চ সকাল সাড়ে ৮ টায় দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৯৯ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পূস্পার্ঘ্য অর্পন পৃথক পৃথক ভাবে দেন, দিনাজপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি। উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, বাংলাদেশ আ.লীগ এবং সহযোগী সংগঠন পৃথক পৃথক ভাবে পূস্পার্ঘ্য অর্পন করেন। উপজেলা পরিষদ চত্বর হতে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে স্মৃতি সৌধে গিয়ে শেষ হয়। পরে উপজেলা হল রুমে কেক কাঁটা হয়। কাহারোল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নাসিম আহমেদ এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, দিনাজপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি। পরে শিশুদের রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে প্রধান অতিথি পুরস্কার বিতরণ করেন।

বীরগঞ্জঃ ‘‘বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন, শিশুর জীবন করো রঙীন’’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৯৯ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ পালিত। বীরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৯৯ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদ্যাপন উপলক্ষ্য সকাল ১০ টায় দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল উপজেলা চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পূস্পার্ঘ্য অর্পন করেন এবং কেক কেটে জন্মদিন পালিত করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়ামিন হোসেন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সদস্য বৃন্দ, সহ সকল দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ। উপজেলা স্মৃতি সৌধে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়ামিন হোসেন এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ-কাহারোল) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল।

ফুলবাড়ীঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে গতকাল রবিবার জাতির জিনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস পালন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে সকাল ৯ টায় উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রা শেষে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরীর সভাপতিতে ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হাসিনা ভুঁইয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায়¡ প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হায়দার আলীর, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান বাবুল,উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লিয়াকত আলী।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ এটিএম হামীম আশরাফ,পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নুরুল ইসলাম, প্রকৌশলী মো. শহিদুজ্জামান, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোছা. রুম্মান আক্তার, মৎস্য কর্মকর্তা মোছা. মাজনুন্নাহার মায়া, থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ নাসিম হাবিব, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শমসের আলী মন্ডল, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রীতা মন্ডল প্রমুখ ।

এছাড়া আলাদিপুর কমিনিউটি ক্লিনিক সহ বিভিন্ন সরকারী বে-সরকারী প্রতিষ্ঠানে র‌্যালী ও আলোচনা সভা, কুইজ ও চিত্রাঙ্কর প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিরামপুরঃ দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলা প্রশাসন এর আয়োজনে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ পালিত হয়েছে।

উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে জাতীয় শিশু দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শৈশবের স্মৃতিজড়িত কর্মকান্ড নিয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে, অনুষ্ঠানে এসময় বক্তব্য রাখেন, বিরামপুর সার্কেল এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মিথুন সরকার, কৃষি অফিসার নিকছন চন্দ্র পাল, থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান, বিরামপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেন, এ্যাডভোকেট মওলা বক্সসহ উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকগণ প্রমূখ।

হিলিঃ হিলিতে র‌্যালি, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা সহ নানা আয়োজনে মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস।

রবিবার সকাল সাড়ে ৭টায় উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্দোগে স্থানীয় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন শেষে বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা অর্পন করেন স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা । পরে দলীয় কার্যালয়ে জাতির পিতার রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মোনাজাত করেন তারা।

এছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রাফিউল আলমের নেতৃত্বে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক,শিক্ষার্থী,উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে বন্দরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে উপজেলা চত্বরে গিয়ে শেষ হয় । পরে উপজেলা অডিটরোয়িাম হলরুমে কেক কেটে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯ তম জন্মদিন ও শিশু দিবস পালন করা হয় । পরে সেখানে বঙ্গবন্ধুর জীবনির উপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ঘোড়াঘাটঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে ঘোড়াঘাট উপজেলা প্রশাসন র‌্যালী,আলোচনা সভা,সাস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সকাল ১০টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানমের নেতৃত্বে এক বর্নাঢ্য র‌্যালী উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। র‌্যালী শেষে উপজেলা মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের কেক কর্তন ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মামুনুর রশিদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম। আরো বক্তব্য দেন কৃষি কর্মকর্তা এখলাস হোসেন সরকার,মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শাহাদত হোসেন,ঘোড়াঘাট থানা ও,সি আমিরুল ইসলাম,প্রধান শিক্ষক বেল্লাল হোসেন ও সাংবাদিক শাহ আলম। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন ্একাডেমিক সুপারভাইজার ধ্বিরাজ সরকার। এ ছাড়াও রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য