চুক্তি ছাড়াই শেষ হলো যুক্তরাষ্ট্র-তালেবান আলোচনাআফগানিস্তান থেকে কবে বিদেশি সৈন্য প্রত্যাহার হবে এ প্রসঙ্গে কোনো চুক্তি ছাড়াই যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবান মধ্যস্থতাকারীদের মধ্যে শান্তি আলোচনার দীর্ঘতম পর্বটি শেষ হয়েছে।

চুক্তি না হলেও আলোচনায় অগ্রগতি হয়েছে বলে মঙ্গলবার বৈঠক শেষে উভয়পক্ষের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

১৬ দিনের এ আলোচনা আপতত শেষ হওয়ার পর মার্চের শেষ দিকে আবার শুরু হবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

এ পর্বের আলোচনায় তালেবান জঙ্গি সংগঠনগুলোকে আফগানিস্তানকে ব্যবহার হামলা চালানোর অনুমতি দিবে না এমন নিশ্চয়তা চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ।

কাতারের রাজধানী দোহায় অনুষ্ঠিত এই আলোচনায় তালেবানের রাজনৈতিক প্রধান মোল্লা আবদুল গণি বারাদার ও মার্কিন দলের নেতৃত্বে বিশেষ দূত জালমে খলিলজাদ ছিলেন।

সন্ত্রাসবাদবিরোধীতার বিষয়ে নিশ্চয়তা এবং আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের বিষয়ে আলোচনায় অগ্রগতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন আফগানিস্তানে জন্ম নেওয়া অভিজ্ঞ মার্কিন কূটনীতিক খলিলজাদ।

“শান্তির জন্য প্রয়োজনীয় শর্তগুলোর উন্নতি হয়েছে। সব পক্ষই যুদ্ধের শেষ চায় এটা পরিষ্কার। উত্থান-পতন সত্বেও আমরা বিষয়গুলোকে লাইনে রাখতে পেরেছি এবং বাস্তব পদক্ষেপ নিতে পেরেছি,” টুইটারে বলেছেন খলিলজাদ।

খলিলজাদের নেতৃত্বাধীন মার্কিন প্রতিনিধি দলের তালেবান শান্তি আলোচনার বেশ কয়েকটি পর্বে অংশ নিলেও আফগানিস্তান সরকারের সঙ্গে আলোচনায় অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছে।

“সৈন্য প্রত্যাহারের সময় ও কার্যকর সন্ত্রাসবাদবিরোধী পদক্ষেপের বিষয়ে সমঝোতার খসড়া যখন চূড়ান্ত হবে তখন তালেবান সরকারসহ অন্যান্য আফগানরা রাজনৈতিক বন্দোবস্ত ও ব্যাপকভিত্তিক ‍যুদ্ধবিরতি নিয়ে আন্তঃআফগান মধ্যস্থতা শুরু করবে,” বলেছেন খলিলজাদ।

তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ জানিয়েছেন, বিদেশি বাহিনীগুলোর প্রত্যাহার ও ভবিষ্যতে আফগানিস্তান থেকে অন্যান্য দেশে হামলা বন্ধ করার মতো ইস্যুগুলোতে দুপক্ষের মধ্যে অগ্রগতি হয়েছে।

তবে যুদ্ধবিরতি বা আফগান সরকারের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে কোনো সমঝোতা হয়নি বলে এক বিবৃতি জানিয়েছেন তিনি।

আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির এক মুখপাত্র টুইটারে বলেছেন, দীর্ঘমেয়াদে যুদ্ধবিরতির সমঝোতা এবং তালেবান ও আফগান সরকারের মধ্যে সরাসরি আলোচনার শুরু দেখার ব্যাপারে আশাবাদী তিনি।

দোহার দক্ষিণ অংশে সমুদ্র তীরবর্তী পাঁচ তারকা রিটজ-কার্লটন হোটেলের ব্যাংকোয়েট হলে তালেবান ও মার্কিন প্রতিনিধিদলের মধ্যে ১৬ দিন ধরে এ রুদ্ধদ্বার আলোচনা হয়।

২০১৩ সাল থেকেই কাতারে তালেবানদের রাজনৈতিক দপ্তরের যাত্রা শুরু হয়। মধ্যপ্রাচ্যের এ দেশটি আফগান অঞ্চলের উত্তেজনা নিরসনে ভূমিকা রাখতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য