দিনাজপুরে আইনজীবী সমিতি’র আয়োজনে সংবর্ধনা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানদিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর জেলা ও দায়রা জজ আজিজ আহমদ ভূঞা বলেছেন, বিশ্বের স্বীকৃত মহান যে দুটি পেশা আছে তার মধ্যে আইন পেশা অন্যতম। আর অপরটি হচ্ছে চিকিৎসা সেবা। মানুষ সমস্যায় পড়লে সর্বপ্রথম আইনজীবী’র স্মরণাপন্য হয়। সরাসরি বিচারকের কাছে যাওয়া সম্ভব হয় না। আর বিচারকের কাছে যাওয়ার অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে আইনজীবী। তাই আইনজীবীরা হচ্ছেন ন্যায় বিচারের পথে একনিষ্ঠ সৈনিক।

১২ মার্চ মঙ্গলবার বিকেলে দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি কর্তৃক আয়োজিত সমিতির সিনিয়র আইনজীবীদের সংবর্ধনা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে জেলা ও দায়রা জজ আরো বলেন, যে দেশে গুনীর কদর নেই, সে দেশে গুনীজন জন্মায় না। তাই প্রবীন ও গুনীজনদের সম্মান করতে হবে। আর প্রবীন আইনজীবীদের সংবর্ধনা প্রদান নবীনদের প্রেরণার উৎস হবে। একটি কথা আছে, ভাল বার একটি ভাল বিচারক বেঞ্চ তৈরি করে। আর ভাল বেঞ্চ ভাল আইনজীবী তৈরি করে। এটি একে অপরের পরিপূরক হিসেবে কাজ করে। তিনি বলেন, বিচারকের কাজ হচ্ছে বিবেকের প্রতি দায়িত্ব বোধ থেকে ও শ্রষ্ঠার প্রতি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে ন্যায় বিচার নিশ্চিত করা। সেই ক্ষেত্রে বিচারক যদি ভুল সিদ্ধান্ত নিতে যায় এমন মনে হলে আপনারা অবশ্যই সঠিক পথে পরিচালিত করবেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. মো. নুরুজ্জামান জাহানী’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন স্পেশাল জজ মাহমুদুল করীম, চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আয়েজ উদ্দিন, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ জামাল উদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমিতির সহ-সভাপতি এ্যাড. মো. নুরুল ইসলাম-৪।

সংবর্ধিত বিজ্ঞ আইনজীবীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোহাম্মদ ইছাহক, মো. আজিজুল ইসলাম জুগলু, মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ মিঞা। আলোচনা শেষে সমিতির ২০ জন বিজ্ঞ আইনজীবীকে সংবর্ধান প্রদান করেন প্রধান অতিথি জেলা ও দায়রা জজসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

এর আগে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত, গীতা পাঠ ও বাইবেল পাঠের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। তারপর সমিতির যে সকল সদস্য ইন্তেকাল করেছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক তহিদুল হক সরকারের পরিচালনায় সিনিয়র আইনজীবীদের সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সকল আইনজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন।

সংবর্ধিত ২০ জন বিজ্ঞ আইনজীবীরা হলেনঃ- এ্যাড. মোহাম্মদ ইছাহক, এ্যাড. আলহাজ্ব মো. আব্দুল মোতালেব, এ্যাড. সৈয়দ রিয়াজুল হোসেন, এ্যাড. এম. এ কাশেম-২, এ্যাড. আব্দুস সামাদ-১, এ্যাড. ফরিদ উদ্দিন আহমদ, এ্যাড. মো. আজিজুল ইসলাম জুগলু, এ্যাড. মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ মিঞা, এ্যাড. এস, এম আবেদ আলী সরকার, এ্যাড. ফায়জার রহমান-২, এ্যাড. মো. আশরাফুল আলম প্রধান, এ্যাড. মো. হাবিবুর রহমান-২, এ্যাড. শ্রী সত্যনারায়ণ আগরওয়ালা, এ্যাড. মো. নুরুল ইসলাম-১, এ্যাড. কাজী আবু জাফর মুহম্মদ লুৎফর রহমান চৌধুরী, এ্যাড. শ্রী প্রফুল্ল কুমার রায়, এ্যাড. আনোয়ারুল ইসলাম-১, এ্যাড. মো. আব্দুস ছউফ, এ্যাড. আলহাজ্ব মো. আজিজুর রহমান চৌধুরী ও এ্যাড. শ্রী উপেন্দ্রনাথ শীল।

পরে দ্বিতীয় পর্বে সমিতির সহ-সভাপতি মো. নুরুল ইসলাম-৪ ও শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক শীষ মহল পপি’র পরিচালনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন উপস্থিত সকলে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য