পলাশবাড়ীতে প্রার্থীদের নানামুখি নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণাআরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের নির্দিষ্ট দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই জমে উঠেছে প্রার্থীদের নানামুখি নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণা।

গত কয়েকদিন ধরে অসময়ের বৃষ্টি ছাড়াও শীতল আবহাওয়ায় শীতের ছোঁয়াসহ প্রাকৃতিক নানা বিরূপ আবহাওয়া উপেক্ষা করে প্রতিদিন সকাল থেকে বিরামহীন গভীর রাত পর্যন্ত প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যান পদের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা। প্রার্থীদের প্রতিক সম্বলিত পোস্টারে-পোস্টারে ছেয়ে গেছে সর্বত্র উপজেলা।

স্ব-স্ব পদে পরস্পর প্রতিদ্বন্দ্বীতায় লিপ্ত প্রার্থীরা যার-যার অবস্থান থেকে তাদের সমর্থক ভোটার কর্মিবাহিনী নিয়ে অব্যাহত নির্বাচনী গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। সুর্যোদয়ের সাথে সাথে প্রার্থীরা বেরিয়ে পড়ছেন ভোটারদের দ্বারে-দ্বারে।

দলীয় নেতাকর্মী ও পরীক্ষিত সমর্থকদের বহর নিয়ে বেড়িয়ে পড়ছেন উপজেলার তৃণমূল পর্যায়ে। এসময় বিভিন্ন ইউনিয়ন সমূহে ভোটারদের বাসাবাড়ী, দোকান-পাট, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান ছাড়াও সর্বস্তরের পথচারিদের নিকট নিজ নিজ পরিচয় তুলে ধরে তাদের মার্কায় ভোট প্রার্থনা করছেন।

দ্বিতীয় ধাপে ১৮ মার্চ পলাশবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।নির্বাচনে দলীয় ও স্বতন্ত্রসহ চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরু) ৮ এবং ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) পদে ৬ জনসহ মোট ১৭ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এরমধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত আলহাজ্ব একেএম মোকছেদ চৌধুরী বিদ্যুৎ (নৌকা) জাতীয়পার্টি মনোনীত এ্যাড. মমতাজ উদদীন (লাঙ্গল) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী বজলার রহমান রাজা (আনারস)।

ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে প্রার্থীরা হচ্ছেন, শেখ ছামসুজ্জোহা আহমেদ হিটু (বই), ফিরোজ কামাল চৌধুরী পলাশ (চশমা), মমিরুল ইসলাম এমদাদুল (উড়োজাহাজ), আনিছুর রহমান মানিক (টিয়াপাখি), আবুল কালাম আজাদ (বাল্ব), এএসএম রফিকুল ইসলাম রিপন (টিউবওয়েল), আশরাফুল ইসলাম (মাইক) ও আলমগীর মন্ডল (তালা)।

মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা হচ্ছেন রিক্তা বেগম (ফুটবল), শ্যামলী বেগম (পদ্মফুল), আনোয়ারা আনিস (কলস), আনোয়ারা বেগম (বৈদ্যুতিক পাখা), কোহিনুর আক্তার বানু শিফন (সেলাই মেশিন) ও চন্দনা রাণী রায় (হাঁস)।

উল্লেখ্য, উপজেলার ৯ ইউনিয়নে ৬৪ ভোট কেন্দ্রের বিপরীতে পুরুষ ও মহিলাসহ মোট ভোটার ১ লাখ ৮৮ হাজার ৪’শ ১১ জন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য