লাদেনের ছেলের নাগরিকত্ব বাতিল করল সৌদি আরবপ্রয়াত আল কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনের ছেলে হামজা বিন লাদেনের নাগরিকত্ব বাতিল করেছে সৌদি আরব।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে একথা জানিয়েছে। শুক্রবার সৌদি আরবের সরকারি উম আল কারা পত্রিকা এ বিবৃতি প্রকাশ করে।

হামজা সম্পর্কে তথ্য দিতে যুক্তরাষ্ট্র ১০ লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার ঘোষণার পরই তার নাগরিকত্ব বাতিলের এ ঘোষণা এল।

আল-কায়দা প্রধান ওসামা বিন লাদেনকে ২০১১ সালে পাকিস্তানে আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে তার ছেলে হামজা বিন লাদেন জঙ্গি দলটির গুরুত্বপূর্ণ নেতা হয়ে উঠেছেন বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, হামজা পশ্চিমা দেশগুলোর রাজধানীতে হামলার ডাক দিয়ে অডিও এবং ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনীর ওপর তার বাবা হত্যার প্রতিশোধ নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন।

বিদেশে অবস্থানরত মার্কিন নাগরিকদেরকেও হামজা হুমকি দিয়েছেন এবং সৌদি আদিবাসীদেরকে ইয়েমেনি আল কায়েদা শাখার সঙ্গে একজোট হয়ে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে লড়াই করার ডাক দিয়েছেন।

তবে হামজা বিন লাদেন বর্তমানে কোথায় আছেন তা জানা যায়নি এবং তার অন্য কোনো দেশের নাগরিকত্ব আছে কিনা তাও পরিষ্কার নয়।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের ধারণা, হামজা খুব সম্ভবত আফগানিস্তান-পাকিস্তান সীমান্তে আছেন। সেখান থেকে তিনি ইরানেও চলে যেতে পারেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য