ভারতবাসী ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করবে ও বিজয়ী হবেভারতকে কোনোভাবেই দমানো যাবে না বলে শত্রু রাষ্ট্রগুলোকে হুঁশিয়ার করেছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দলীয় নেতা কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, গোটা জাতি জওয়ানদের পাশে আছে এবং ভারতবাসী তাদের সঙ্গে এক হয়ে লড়াই চালাবে ও বিজয়ী হবে। পাল্টাপাল্টি হামলায় ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সাম্প্রতিক উত্তেজনা বৃদ্ধির মধ্যেই বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) এসব কথা বলেন মোদি।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মিরের পুলওয়ামায় ভারতের‘সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের’ গাড়িবহরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় বাহিনীটির অন্তত ৪০ জন সদস্য প্রাণ হারান। পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদ হামলার দায় স্বীকার করে। মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ভারতীয় বিমান বাহিনী ৭১-পরবর্তী ইতিহাসে প্রথমবারের মতো পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের আকাশসীমায় ঢুকে বিমান হামলা চালানোর পর জানায়, জইশ-ই মোহাম্মদের ঘাঁটি ধ্বংসের উদ্দেশ্যেই তারা ওই ‘অসামরিক অভিযান’ পরিচালনা করেছে। বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করার দাবি করে পাকিস্তান। বিপরীতে ভারতও পাকিস্তানের একটি ফাইটার জেট ভূপাতিত করার দাবি করেছে।

নিউজ এইটিনের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ‘মেরা বুথ, সবসে মজবুত’ নামক নির্বাচনি কর্মসূচির অংশ হিসেবে ভিডিও কনফারেন্সে ভাষণ দেন মোদি। দলটির দাবি, এদিন মোদি বিজেপির ১ কোটি কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবীর উদ্দেশে ভাষন দিয়েছেন এবং এটি ‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভিডিও কনফারেন্স।’ বিজেপি প্রধান অমিত শাহ ও দলের অন্য নেতারা দিল্লি অফিস থেকে ওই ভিডিও কনফারেন্সের সঙ্গে সংযুক্ত হন।

ভাষণে মোদি বলেন, ‘নিজেদের বাহিনীর সক্ষমতা নিয়ে আমাদের আত্মবিশ্বাস আছে। আমাদের কোনও কর্মকাণ্ডই যেন বাহিনীর নৈতিকতাকে ক্ষতিগ্রস্ত না করতে পারে তা আমাদেরকে অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে। শত্রুদেরকে আমাদের দিকে আঙুল তোলার সুযোগ দেওয়া যাবে না।’

মোদি আরও বলেন, ‘সন্ত্রাসী হামলা চালানোর নেপথ্যের কারণগুলোর একটি হলো দেশের উন্নয়নকে রুখে দেওয়া। বর্তমান পরিস্থিতিতে প্রত্যেক নাগরিককেই একজন ভারতীয় সেনার মতো করেই সতর্ক থাকতে হবে। ভারত এক হয়ে বাঁচবে, এক হয়ে কাজ করবে, ঐক্যবদ্ধভাবে সমৃদ্ধ হবে, এক হয়ে লড়াই চালাবে এবং ঐক্যবদ্ধভাবেই বিজয়ী হবে।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য