দীর্ঘ ৬৮ বছর বন্দি জীবনের পর গত ২০১৫ সালের ১ আগস্টে বাংলাদেশের মানচিত্রে ভারতীয় ১১১ ছিটমহল নতুনভাবে যোগ হয়। এদের মধ্যে দাসিয়ারছড়া ছিটমহলটি বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ছিটমহল।

ফলে বাংলাদেশের মূল ভূখন্ডে যুক্ত হওয়ার পর প্রথমবারের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে যাচ্ছেন ভারতের মানচিত্র থেকে বাংলাদেশের মানচিত্রে স্থান করে নেওয়া বিলুপ্ত ছিটহলের দাসিয়ারছড়ার অধিবাসীরা।

নাগরিকত্ব পাওয়ার পর এই প্রথম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন তারা। স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি নির্বাচনে নাগরিক অধিকার প্রয়োগের এমন সুযোগে নতুন এই নাগরিকদের মাঝে দেখা দিয়েছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা।

অন্যান্য জেলা ও উপজেলার মানুষের মতো তারাও ভোট উৎসবে মেতে উঠেছেন। এই নিয়ে চলছে নানা শলাপরামর্শ ও আলাপ-আলোচনা।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, দাসিয়ারছড়াসহ উপজেলার মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ২৬ হাজার ৪১১ জন। পুরুষ ভোটার ৬২ হাজার ৩০১ জন ও মহিলা ভোটার ৬৪ হাজার ১১০ জন। এদের মধ্যে বিলুপ্ত দাসিয়ারছড়ায় মোট ভোটার সংখ্যা ৩ হাজার ১৭২ জন। পুরুষ ভোটার ১ হাজার ৫৯০ জন ও মহিলা ভোটার ১ হাজার ৮২ জন।

উপজেলায় মোট ভোট কেন্দ্র ৫০টি। বিলুপ্ত দাসিয়ারছড়াবাসীরা ছয়টি ভোট কেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। সেই সব ভোট কেন্দ্রগুলো হলো ফুলবাড়ী ইউনিয়নের পশ্চিম কুটি-চন্দ্রখানা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পূর্ব চন্দ্রখান উচ্চবিদ্যালয়, চন্দ্রখানা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাদারের পাঠ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভাঙ্গামোড় ইউনিয়নের আটিয়াবাড়ী ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কাশিপুর ইউনিয়নের ছড়ারপাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এসব ভোট কেন্দ্রে তারা ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য