ভারত-পাকিস্তান চাইলে কাশ্মির সংকটে মধ্যস্থতা করবে জাতিসংঘজাতিসংঘ জানিয়েছে, ভারত ও পাকিস্তান চাইলে কাশ্মির সংকটে মধ্যস্থতা করবে তারা। মঙ্গলবার সংস্থাটির পক্ষে মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস এ্ই অবস্থানের কথা তুলে ধরেন। মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিকের মাধ্যমে দেওয়া বিবৃতিতে চলমান উত্তেজনা নিরসনে দুই দেশকেই সংযত আচরণ করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) পুলওয়ামাতে আরডিএক্স বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি নিয়ে ‘সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স’র গাড়ি বহরে আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়। এতে বহরের ৭০টি গাড়ির মধ্যে একটি বাস সম্পূর্ণভাবে ভস্মীভূত হয়ে যায়। প্রাণ হারায় বাহিনীর অন্তত ৪৪ সদস্য। হামলার দায় স্বীকার করে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদ। এ ঘটনায় পাকিস্তানের প্রত্যক্ষ সংশ্লিষ্টতা আছে বলে দাবি ভারতের। তবে পাকিস্তান ভারতকে প্রমাণ হাজিরের চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছে, দিল্লির অভিযোগ ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

পুলওয়ামায় হামলার প্রেক্ষাপটে ভারত ও পাকিস্তানে যে উত্তেজনার আবহ দেখা দিয়েছে, হুমকি-পাল্টা হুমকির পালা চলছে, তাতে দু’দেশেই একটা উদ্বেগজনক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। উত্তেজনা নিরসনে উভয় দেশকে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার তাগিদ দিয়েছে জাতিসংঘ। মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) এক সংবাদ সম্মেলনে জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টেফানি ডুজারিক বলেন, “পুলওয়ামা হামলার পর ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনার যে আবহ তৈরি হয়েছে, তা অত্যন্ত উদ্বেগজনক।” তিনি আরও বলেন, “মহাসচিব ভারত-পাকিস্তান দু’দেশকেই সংযত থাকার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। এ নিয়ে যে কোনও সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত জাতিসংঘ।”

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য