আদালতে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন কলকাতার সাবেক পুলিশ কমিশনারভারতের সুপ্রিম কোর্টে নিঃশর্তভাবে ক্ষমা চাইলেন কলকাতার সাবেক পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার। সারদা চিট ফান্ড মামলায় সিবিআইয়ের দায়ের করা আবেদনের প্রত্যুত্তরে ক্ষমা প্রার্থনার এফিডেভিট জমা দিয়েছেন তিনি। তার পাশাপাশি রাজ্যের মুখ্য সচিব মলয় দে ও ডিজিপি বীরেন্দ্র কুমারও এফিডেভিটের মাধ্যমে সুপ্রিম কোর্টে নিঃশর্তভাবে ক্ষমা চেয়েছেন।

কলকাতায় রাজীব কুমারকে সারদা মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য তার সরকারি বাসভবনে ঢোকার চেষ্টা করে সিবিআই। সেখানে বাধা পেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় সিবিআই। সুপ্রিম কোর্ট রাজীব কুমারকে নির্দেশ দেয়, তিনি যেন সিবিআইয়ের সামনে হাজির হয়ে ‘নিষ্ঠা সহকারে’ সারদা চিট ফান্ড মামলার তদন্তে সহযোগিতা করেন।

গত ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে টানা পাঁচদিন ধরে মেঘালয়ের রাজধানী শিলংয়ে রাজীব কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। সারদা-রোজ ভ্যালিসহ বেআইনি অর্থলগ্নিকারী সংস্থাগুলোর কেলেঙ্কারি তদন্তে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তুলে রাজ্য পুলিশ-প্রশাসনের এই তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করেছিল সিবিআই। প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ তাঁদের জবাবদিহিতা জমার আদেশ দিয়েছিল।

এফিডেভিটে বলা হয়েছে, কোনও সময়েই তারা সিবিআইকে তদন্তে বাধা দেননি। সিবিআইয়ের কোনও কর্মকর্তার সঙ্গেও তারা অসহযোগিতাও করেননি। সাবেক পুলিশ কমিশনার আদালতকে আরও জানিয়েছেন, গত ৩ ফেব্রুয়ারি কোনও রকম বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই জোর করে তার সরকারি বাসভবনে ঢোকার চেষ্টা করে সিবিআই। তার এই বক্তব্যকে সমর্থন করেন ডিজিপি।

প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন একটি বেঞ্চ আবেদনকারীদের ২০ ফেব্রুয়ারি বেঞ্চের সামনে সশরীরে হাজির হতে হবে কি না সে বিষয়ে এফিডেভিট খতিয়ে দেখে পরে সিদ্ধান্ত ঘোষণার কথা জানিয়েছিল। গতকাল শীর্ষ আদালতের সেক্রেটারি জেনারেলের এ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্টদের জানিয়ে দেওয়ার কথা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য