রংপুরের কাউনিয়ায় আরপিএমপি হারাগাছ থানা এলাকায় স্বামী হারা এক গৃহবধূকে (৩৪) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অভিযোগে আনিছুর রহমান ওরফে রানা (৩৮) নামের এক হালবাল পল্লী চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করে আজ মঙ্গলবার রংপুর আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ওই গৃহবধুর ভাষ্য, গত ২৬ জানুয়ায়ী দুুপুরে উপজেলার হারাগাছ থানা এলাকায় বালারঘাট ব্রিজ এলাকায় ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার পর ওইদিন স্থানীয় মাতাবরদের কাছে ধর্ষকের বিচার দাবী করেন।

কিন্তু স্থানীয় কতিপয় কয়েকজন মাতাব্বররা বিচার করে দিবে বলে আশ্বায় প্রদান করে তাঁকে আইনের আশ্রয় নিতে বাধা প্রদান করেন। ধর্ষকের বিচার না পেয়ে সোমবার রাতে তিনি বাদী হয়ে হারাগাছ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মামলায় হালবাল পল্লী চিকিৎসক আনিছুর রহমান ওরফে রানাকে একমাত্র আসামি করা হয়। আনিছুর রহমান বাড়ি একই উপজেলার বালারঘাট ব্রিজ এলাকার মাস্টার পাড়া।

পরিবার, স্থানীয় লোকজন ও পুলিশের ভাষ্য, স্বামীর মুৃত্যুর পর ওই গৃহবধূ বাড়ীর পাশে একটি চায়ের দোকান করতো। গত ২৬ জানুয়ায়ী দুুপুরে বখাটে আনিছুর রহমান চায়ের দোকানে গৃহবধূকে একা পেয়ে জোর পুর্বক ধর্ষণ করেন। পরে স্থানীয় কতিপয় লোকজন ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্ঠা করে। খবর পেয়ে সোমবার ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের হারাগাছ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূ গতকাল সোমবার রাতে মামলা করেন। রাতেই অভিযান চালিয়ে আনিছুর রহমানকে আটক করা হয়। মামলায় আনিছুর রহমানকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে মঙ্গলবার দুপুরের দিকে তাঁকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য