দেয়াল নির্মাণের অর্থায়নে জরুরি অবস্থা জারি করলেন ট্রাম্পকংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের অর্থ বরাদ্দ পেতে যুক্তরাষ্ট্রে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউসে দেওয়া এক বক্তব্যে ট্রাম্প জানান, এর মাধ্যমে আগে বরাদ্দ চাওয়া ৫৭০ কোটি ডলারের জায়গায় এখন তিনি আটশো কোটি ডলার বরাদ্দ দিতে পারবেন দেয়াল নির্মাণের জন্য। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে ট্রাম্পের চাহিদা মাফিক অর্থ দেওয়া নিয়ে সমঝোতা না হওয়ায় গত ডিসেম্বরে আংশিক শাটডাউনের মুখে পড়ে যুক্তরাষ্ট্র। ১‌৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অস্থায়ী বাজেট বরাদ্দের মধ্য দিয়ে গত ২৫ জানুয়ারিতে ৩৫ দিনের সে শাটডাউনের অবসান হয়। নতুন করে অচলাবস্থা এড়াতে বৃহস্পতিবার প্রতিনিধি পরিষদ বাজেট অনুমোদন দেয়। কিন্তু সীমান্ত দেওয়াল নির্মাণে অর্থ বরাদ্দের কোনও সিদ্ধান্ত না হলে জরুরি অবস্থা জারির ইঙ্গিত দেন ট্রাম্প।

জরুরি অবস্থা জারির ফলে সামরিক কিংবা দুর্যোগ খাতের মতো বিভিন্ন খাত থেকে দেয়াল নির্মাণের জন্য অর্থ বরাদ্দ দিতে পারবেন ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, এ ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে সামরিক খাতের নির্মাণ প্রকল্পের ৩৬০ কোটি ডলার, মাদকবিরোধী প্রকল্পের ২৫০ কোটি ডলার এবং ট্রেজারি বিভাগের ৬০ কোটি ডলার দেয়াল নির্মাণে বরাদ্দ দিতে পারবেন ট্রাম্প। সব মিলে দেয়াল নির্মাণের জন্য ট্রাম্পের হাতে চলে আসবে প্রায় ৮০০ কোটি ডলার।

মোক্সিকো সীমান্তে স্থায়ী দেয়াল নির্মাণ ছিল ট্রাম্পের অন্যতম নির্বাচনি প্রতিশ্রুতি। নির্মাণ কাজ শুরু করতে চলতি বছর কংগ্রেসের কাছে ৫৭০ কোটি ডলার চেয়েছিলেন তিনি। তবে সে টাকা দিতে সম্মত না হওয়ায় কংগ্রেসেরে অনুমোদন দেওয়া অস্থায়ী বাজেট বরাদ্দে স্বাক্ষর করেননি ট্রাম্প। সেকারণে ৩৫ দিন অচল হয়ে থাকে মার্কিন কেন্দ্রীয় সরকারের একাংশ। সর্বশেষ অস্থায়ী বাজেটে স্বাক্ষর করে সরকার সচল রাখলেও তাতে দাবিকৃত অর্থ বরাদ্দ না পেয়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণার পথেই হাঁটলেন ট্রাম্প।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য