ভারতে ভেজাল মদপানে অন্তত ৪৪ জনের মৃত্যুভারতের উত্তর প্রদেশে ভেজাল মদপানে অন্তত ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত তিনদিনে রাজ্যটির পশ্চিমাঞ্চলীয় জেলা সাহারনপুরে ৩৬ জন এবং পূর্বাঞ্চলীয় জেলা কুশিনগরে ৮ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। বেশ কয়েকজন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। চিকিৎসকদের আশঙ্কা, মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এখবর জানিয়েছে।

উত্তর প্রদেশের পুলিশের দাবি, সাহারানপুরের নিহতরা এই ভেজাল মদপান করে উত্তরাখন্ডে। সেখানে একটি শেষকৃত্যের অনুষ্ঠানে জেলার কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন। পরে তা গ্রামের এক লোক জেলায় পাচার করে নিয়ে আসে ও বিক্রি করে। কুশিনগরের ভেজাল মদ বিহারে তৈরি করা হতে পারে। যদিও সেখানে মদ উৎপাদন নিষিদ্ধ।

সাহারানপুর জেলার ম্যাজিস্ট্রেট একে পান্ডে বলেন, শুরুতেই চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হলে মৃত্যুর সংখ্যা অনেক কম হতো। দ্বিতীয় ঘটনা হলো পিন্টু নামের এক ব্যক্তি তাদের কাছে ৩০ বোতল মদ বিক্রি করে। কয়েকটি বোতল উদ্ধার করা হয়েছে। এই বোতলগুলো থেকে যারাই মদপান করেছে তারা মৃত বা হাসপাতালে রয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী ইয়োগী আদিত্যনাথের নির্দেশে রাজ্য পুলিশ অবৈধ মদ উৎপাদন ও বিক্রির বিরুদ্ধে অভিযানে নেমেছে। রাজ্যের বেশ কয়েকটি এলাকায় হানা দেওয়া হয়েছে। বান্দায় ব্যাপক পরিমাণে অবৈধ মদ জব্দ করা হয়েছে।

ভেজাল মদপানের আটটি ঘটনায় ২০১১ সাল থেকে উত্তর প্রদেশে ১৭৫ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এসব ঘটনার চারটি ঘটেছে ইয়োগী আদিত্যনাথের শাসনামলে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য