শিক্ষকের মুক্তি ও বিদ্যালয় ভাংচুরের প্রতিবাদে গোবিন্দগঞ্জের মানববন্ধনআরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার তালুককানুপুর ইউনিয়নের তালতলা দ্বিমুখী উচচ বিদ্যালয়ে ভাংচুর ও প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদ এবং প্রধান তার মুক্তির দাবীতে বুধবার দুপুরে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে।

বিদ্যালয় চত্বরে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচী চলাকালে বক্তব্য রাখেন ওই বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুল হালিম আকন্দ, সহকারি শিক্ষক আমিনুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, কোহিনুর বেগম, সুলতানা বেগম, খালেদা আকতার প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম গত ৩ ফ্রেব্র“য়ারী সন্ধ্যায় অফিসের আলমারি থেকে তার নিজস্ব টাকা নেয়ার উদ্দেশ্যে স্কুলে যান। এসময় স্কুল ছাত্রী তার নাতনি সাথে ছিলো। তারা গোবিন্দগঞ্জ মার্কেটে যেতে বাড়ি থেকে বের হয়ে সেখানে যান।

এসময় স্থানীয় কিছু ব্যক্তি তাকে হয়রানি করার উদ্দেশ্যে তার উপর চড়াও হয়। তারা বিদ্যালয়েল অফিস কক্ষ ভাংচুর করে। তাদের মিথ্যা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ শহিদুল ইসলামকে আটক করে নিয়ে যায়। বক্তারা অবিলম্বে ভাংচুরকারীদের শাস্তি ও প্রধান শিক্ষকের মুক্তির দাবি জানান। অন্যথায় বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে তারা ঘোষণা দেন।

উল্লেখ্য, গত ৩ ফ্রেব্র“য়ারী সন্ধ্যায় বিদ্যালয় কক্ষে এক ছাত্রীর সাথে প্রধান শিক্ষকের অনৈতিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে স্থানীয় লোকজন অফিস কক্ষে তালা ঝুলে দিয়ে বিক্ষোভ করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম ও ওই ছাত্রীকে থানায় নিয়ে যায়। পরে পুলিশ তাদের জবানবন্দি নিয়ে ওই রাতেই ছাত্রীকে তার বাবার জিম্মায় ছেড়ে দেয়। পুলিশ পরদিন ওই প্রধান শিক্ষককে ৫৪ ধারার মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠায়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য