কোরআনকে ‘বিষাক্ত’ বলা ডাচ এমপির ইসলাম গ্রহণএকসময় ইসলামকে ‘মিথ্যা’ এবং কোরআন শরিফ’কে ‘বিষাক্ত’ বলে অভিহিত করা ডাচ এমপির ইসলাম গ্রহণ নিয়ে নেদারল্যান্ডে চলছে হইচই। অনেকে এর প্রশংসা করছেন আবার কেউ করছেন কড়া সমালোচনা।

গত বছরের ২৬ অক্টোবর জোরাম ভ্যান ক্লাভিরিন (৩৯) ইসলাম গ্রহণ করেন। জোরাম ২০১০ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত পার্লামেন্ট ফর দ্য ফ্রিডম পার্টির (পিভিভি) সদস্য ছিলেন। কিন্তু ২০১৪ সালে তিনি সে দল ছেড়ে দেন।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ইসলামবিরোধী একটি বই লিখতে গিয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন জোরাম।

এর কারণ হিসেবে জোরাম ডাচ রেডিওকে জানান, ইসলাম বিরোধী বইটি লিখতে গিয়ে আমাকে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে অনেক জানতে হয়, অনেক বিষয় পড়তে হয়। যা আমার ইসলাম সম্পর্কে ধারণা বদলে দেয়।

প্রকাশ্যে ইসলাম গ্রহণের কথা স্বীকার করায় জোরামকে ধন্যবাদ জানান ও প্রশংসা করেন নেদারল্যান্ডসে মরোক্কান মসজিদ বোর্ডের সদস্য সাইদ বোহারু।

তিনি বলেন, ইসলাম নিয়ে তীব্র সমালোচনা করা কেউ যখন বুঝতে পারে, ইসলাম বাজে নয়, বিকৃত নয়, তখন সেটা বেশ আনন্দের৷

২০১৪ সালে পিভিভি দল ছেড়ে দেওয়ার পর জোরাম ‘ফর নেদারল্যান্ডস’ নামে একটি দল গড়েন। ২০১৭ সালে নেদারল্যান্ডের জাতীয় নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেন। কিন্তু তাতে জয়লাভ করতে ব্যর্থ হন। এরপর তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেন।

ফর নেদারল্যান্ডস দলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক নেতা ইয়ান রুস বলছেন, যদি এটি জোরামের বইয়ের প্রচারের জন্য কোনো স্টান্ট না হয়ে থাকে, তাহলে ইসলাম নিয়ে এতো কথা বলা ব্যক্তির পক্ষে এমন সিদ্ধান্ত খুবই আশ্চর্যের।

উল্লেখ্য, নেদারল্যান্ডসে ধর্মীয় স্বাধীনতা রয়েছে। সেখানে নিজের ইচ্ছামত যেকেউ ধর্ম বদল করতে পারে। নেদারল্যান্ডে মোট জনসংখ্যার প্রায় ৫ শতাংশ মুসলিম৷ দেশটিতে বর্তমান মোট জনসংখ্যা প্রায়, ১ কোটি ৭১ লাখ। তবে দেশটিতে নানা বাঁধা বিপত্তি সত্ত্বেও ক্রমেই মুসলিমদের সংখ্যা বেড়ে চলেছে৷

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য