৩৫ হাজার গ্রাহকের ১ জন ক্যাশিয়ার হাকিমপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুরের হিলি পল্লি বিদ্যুৎ সাব জোনাল অফিসের আওতাধীন ৩৫ হাজার গ্রাহকের জন্য রয়েছে মাত্র এক জন ক্যাশিয়ার। ফলে লাইনে দাঁড়িয়ে ভোগান্তি আর বিড়ম্বনার মধ্য দিয়ে গ্রাহকদের বিদ্যুৎ বিল দিতে হচ্ছে।

জানা যায়, হিলি পল্লি বিদ্যুৎ সাব জোনাল আওতায় পাশ^বর্তী নবাবগঞ্জ, ঘোড়াঘাট থানার আংশিক এবং শতভাগ বিদ্যুতায়িত হাকিমপুর উপজেলায় মোট গ্রাহক সংখ্যা ৩৪ হাজার ৯৫১জন। আর এসব বিদ্যুৎ বিল পরিশোধে রয়েছে মাত্র একজন ক্যাশিয়ার। ফলে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে এসে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে গ্রাহকদের।

ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে গিয়ে ধৈয্য হারানো গ্রাহকদের সঙ্গে মাঝে-মধ্যে বাকবিতন্ডার ঘটনাও ঘটছে। গ্রাহকদের বিড়ম্বনার এ বিষয়টি স্থানীয় পল্লি বিদ্যুৎ কর্মকর্তাকে জানালেও তারা কর্ণপাত করছেন না বলে অভিযোগ রয়েছে।

এছাড়াও স্ট্যান্ডার্ড ব্যাক লি. ও কৃষি ব্যাংক লি. ও টেলিটকের মাধ্যেও বিদুৎ বিল পরিশোধের সুযোগ রয়েছে। কিন্তু প্রচারণা না থাকায় অনেকেই জানেন না।

বোলদাড় ইউনিয়নের পল্লী বিদুৎ গ্রাহক ইজিবাইক চালক আছমান আলী জানান, বিগত মাসের বিল গিতে গিয়েও লাইনে প্রচন্ড ভিড়ের কারণে ফিরে আসতে হয়েছে। এখন একই সঙ্গে দুটি বিল দিতে হচ্ছে, যা আমার মতো গরিব মানুষের জন্য কষ্টকর।

হাকিমপুর (হিলি) পৌরসভার রাউতারা মহল্লার বাসিন্দা লুৎফর রহমান জানান, বিদুৎ বিল পরিশোধের জন্য যদি আরো একজন ক্যাশিয়ার থাকত, তবে ভোগান্তি কিছুটা লাঘব হতো।

পল্লি বিদ্যুৎ হিলি সাবজোনাল অফিসের এজিএম মো. সাইদুর রহমান জানান, আমরা আরো একজন ক্যাশিয়ার নিয়োগের জন্য সংশ্লিষ্ট উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি আশা করি খুর শিঘ্রই আরো একজন ক্যাশিয়ার পাবো।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য