রাজারহাটে ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা গ্রেফতার ২, ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধনকুড়িগ্রামের রাজারহাটে জমি সংক্রান্ত কোন্দলের জের ধরে প্রতিপক্ষরা আবদুল হাদী নামের এক মাদরাসা ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ ২জনকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে। এদিকে হত্যাকান্ডের শিকার আবদুল হাদির হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবর স্বারক লিপি প্রদান করেছে চান্দামারী ফাজিল ডিগ্রী মাদরাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, উপজেলার উমরমজিদ ইউনিয়নের পান্থাপাড়া গ্রামের বকসী পাড়ার মোহাম্মদ আলীর সাথে একই ইউনিয়নের ছোট মহিষমুড়ি গ্রামের মতিয়ার রহমানের জমি নিয়ে কোন্দল চলছিল। এরই সুত্র ধরে গত ৩ফেব্রুয়ারী রোববার সকালে উমরমজিদ ইউনিয়ন পরিষদের পাশে উভয় দলের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষ বাঁধে।

এতে মতিয়ার ও তার লোকজন মোহাম্মদ আলী বকসীর পুত্র আবদুল হাদি(১৫) ও আবু বক্কর বকসীর পুত্র পাপ্পু(১৫)কে বেধরক পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। পরে এলাকাবাসীরা ছুটে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের রংপুর মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করে।

গত ৪ফেব্রুয়ারী সোমবার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আবদুল হাদি মারা যায়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। আবদুল হাদি বকসী চান্দামারী ফাজিল ডিগ্রী মাদরাসার ১০ম শ্রেণির ছাত্র। এ বিষয়ে রাজারহাট থানায় হত্যাকান্ডের শিকার আবদুল হাদির পিতা বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

৫ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত মামুন(৩০) ও মিজানুর রহমান সাজু(৩৫)কে আটক করে কুড়িগ্রাম জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। এ ব্যাপারে রাজারহাট থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ কৃষ্ণ কুমার সরকার বলেন, অন্যান্যের গ্রেফতারে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য