দিনাজপুর শহরে আধিপত্যকে বিস্তার করে ব্যাপক ভাংচুরদিনাজপুর সংবাদাতাঃ আধিপত্য বিস্তার কে কেন্দ্র দিনাজপুর শহরের ৮নং উপশহরে বিভক্ত দুটি গ্রুপের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে ব্যাপক ভাংচুর, অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি ঘটে ২ ফেব্রুয়ারী শনিবার রাত সাড়ে ১১টায়। এলাকায় সাধারন মানুষ আতংকের মধ্যে রয়েছে। অভিভাবকরা সন্তানদের বের হতে দিচ্ছেন না।

পুরো এলাকা জুড়ে থমথমে অবস্থা। যে কোন মুহুর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের শংকা রয়েছে। সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রে আলমগীরসহ কয়েকজন আহত হয়। এলাকাবাসী মোঃ শহীদ জানান, একদল সন্ত্রাসী রাত সাড়ে ১১টায় আমার ভবন ঘিরে ফিলে এবং সন্ত্রাসীরা আমার কাছে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে ধারালো অস্ত্র, ইটপাটকেল দিয়ে আমার ভবনের দরজা জানালা ভাংচুর করে।

তরিকুল ইসলাম জানান, একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী আমার বাসভবনে আক্রমন করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে ঘরের টিন কোপায় এবং ঘরে থাকা মোটরসাইকেলটি ভাংচুর করে। আব্দুর রহিমের স্ত্রী মুর্শেদা জানান, দা, কুরাল, সামুরাইসহ প্রায় অর্ধশতাধিক সন্ত্রাসী বাড়ীতে আক্রমন চালিয়ে ঘরে রক্ষিত একটি কার (যার নং-ঢাকা মেট্রো-ক-০৩-৩২৩৫) ও একটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে।

মুর্শেদা জানান, এসময় বাহিরে রক্ষিত ৪/৫টি অটোবাইক ভাংচুর করে। সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আলমগীর জানান, সন্ত্রাসীরা একটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করার সময় বাধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যার উদ্যোশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায়। সন্ত্রাসীরা রুবেল নামক এক যুবকের মোটরসাইকেল ভাংচুর করে। ৮নং শেখপুরা মহল্লার স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি রায়হান জানান, গাঁজা ব্যবসা বাধা দেয়ার কারনেই পুলিশের খাতায় চিহিৃত একজন গাঁজা ব্যবসায়ী সন্ত্রাসীদের লেলিয়ে দিয়ে এ ঘটনা সৃষ্টি করেছে।

সাড়ে ১১টা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সন্ত্রাসীরা এলাকায় সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা শাওন জানান, সন্ত্রাসীরা ৩টি মোটরসাইকেল, ১টি কার, ৫টি অটোবাইকসহ ৩টি বাড়ীর দরজা, জানালা, টিন, গ্রীল ভাংচুর করে। একটি মোটরসাইকেলে অগ্নি সংযোগ করে। এ দিকে মোঃ শহীদ, জাহানারা বেগম ও আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে পৃথক ৩টি অভিযোগপত্র কোতয়ালী থানায় জমা দিয়েছেন।

এ দিকে ৭নং নিউটানের ইউনুছ আলী ও নন্দলাল অভিযোগ করেন, একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী রাতে ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাদের বাড়ী ঘেরাও করে। ঘরের জানালার থাই গুলি ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ভেঙ্গে দেয়। সন্ত্রাসীরা এলাকা ছেড়ে দেয়ার জন্য হুমকি দিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে দিনাজপুর কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রেদওয়ানুর রহিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ক্ষতিগ্রস্থদের থানায় মামলা করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এলাকায় পুলিশ টহল অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য