২১ ফেব্রুয়ারি থেকে অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণ শুরুর ঘোষণাঅযোধ্যায় ভেঙে ফেলা বাবরি মসজিদের জায়গায় আগামী মাসেই রাম মন্দিরের নির্মাণ কাজ শুরুর ঘোষণা দিয়েছেন ভারতের প্রভাবশালী হিন্দু ধর্মীয় নেতা স্বামী স্বরূপানন্দ স্বরস্বতী।

বুধবার প্রয়াগরাজের কুম্ভ মেলায় হিন্দু সন্ন্যাসীদের তিনদিনের সম্মেলনের শেষ পর্যায়ে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি মন্দিরের ‘শিলান্যাস’ অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা করেন তিনি।

এনডিটিভি জানায়, রাম জন্মভূমি বলে কথিত বাবরি মসজিদের ‘উদ্বৃত্ত জমি’ প্রকৃত মালিকের কাছে হস্তান্তরের অনুমতি চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের আবেদন করার একদিনের মাথায় দ্বারকা পীঠ শঙ্করাচার্যের এ ‘ধর্মাদেশ’ এল।

গুজরাটের দ্বারকায় স্থাপিত সারদা মঠের প্রধান স্বামী স্বরূপানন্দই ‘দ্বারকাপীঠ শঙ্করাচার্য’ হিসেবে পরিচিত।

কুম্ভ মেলায় জ্যোতিষীদের তিন দিনের ‘ধর্ম সংসদ’ থেকে মন্দির নির্মাণের নির্ধারিত দিনে রামভক্তদের জনপ্রতি চারটি করে ইট নিয়ে অযোধ্যায় আসার আহ্বান জানানো হয়েছে।

ইট গেঁথে মন্দির নির্মাণের কাজ শুরুর পরিকল্পনায় অনুষ্ঠানটিকে ‘ইষ্টিকা ন্যাস’ নামেও ডাকা হচ্ছে।

রাম মন্দির বানানোর লক্ষ্যে হিন্দু সাধুরা ১০ ফেব্রুয়ারি বসন্ত পঞ্চমী শেষে প্রয়াগরাজ থেকে অযোধ্যার দিকে যাত্রা শুরু করবেন বলেও স্বরূপানন্দ জানিয়েছেন।

তারা ‘বুলেটের মুখোমুখি হতেও প্রস্তুত থাকবেন’, শঙ্করাচার্য এমনটাই বলেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা পিটিআই।

লোকসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকার পরও ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) যে রাম মন্দির নির্মাণ শুরুর আইন করছে না সেজন্য ক্ষমতাসীনদেরও ব্যাপক সমালোচনা করেছেন তিনি।

বিজেপি তার সংখ্যাগরিষ্ঠতাকে কেবল সরকারি চাকরির কোটা সংরক্ষণ ও অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল জনগোষ্ঠীর জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বানানোর কাজেই ব্যবহার করছে বলেও মন্তব্য এ ধর্মীয় নেতার।

সন্ন্যাসীদের পর বিশ্ব হিন্দু পরিষদও ‘ধর্ম সংসদ’ ডেকেছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি। বৃহস্পতিবার থেকে প্রয়াগরাজেই দুদিনব্যাপী এ সম্মেলন হওয়ার কথা রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য