তীব্র শীতে বিপর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যপশ্চিমাঞ্চলযুক্তরাষ্ট্রের মধ্যপশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন শহরে সপ্তাহজুড়েই তীব্র শীত ও ঠাণ্ডা বাতাসের ঝাপটা থাকবে বলে পূর্বাভাসে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া বিভাগ।

কোথাও কোথাও তাপমাত্রা মাইনাস ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা তাদের। ঠাণ্ডা বাতাসের ঝাপটায় গ্রেট লেক অঞ্চলের উত্তরে তাপমাত্রা অনুভূত হতে পারে মাইনাস ৬৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মতো।

ভয়াবহ এ শীত এরই মধ্যে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের এক ব্যক্তির প্রাণ কেড়ে নিয়েছে বলে ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

অঙ্গরাজ্যটিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে; বন্ধ রাখা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। ডাক বিভাগের স্বাভাবিক কার্যক্রমও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আবহাওয়ার কারণে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে হাজারো ফ্লাইটের উড্ডয়ন বাতিল করা হয়েছে।

তীব্র শীতে মঙ্গলবার অনেক এলাকার তাপমাত্রা শূন্যের বেশ কয়েক ডিগ্রি নিচে নেমে গেছে। রাতের দিকে তাপমাত্রার আরও অবনতি ঘটে।

এসব এলাকার বাসিন্দাদের জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

“এটা ঐতিহাসিক ঠাণ্ডা। যা আমরা দেখছি, এর আগে এরকমটা কখনো দেখেছি বলে মনে করতে পারছি না,” বলেছেন উইসকনসিনের পুলিশ কর্মকর্তা ক্রেইগ কালকা।

মঙ্গলবার দিনের বেলায় অঙ্গরাজ্যটির তাপমাত্রা শূন্যের কাছাকাছি ঘোরাফেরা করলেও সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে তা ধারাবাহিকভাবে নিচে নামতে থাকে।

এর মধ্যেই পুলিশ কর্মকর্তা কালকা ছুটে বেড়াচ্ছেন বিভিন্ন সড়ক ও আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে। সংগ্রহ করছেন কম্বলসহ বিভিন্ন সামগ্রী, সড়কে আটকে পড়াদের জন্য ব্যবস্থা করছেন গাড়ির।

রাতে তাপমাত্রা ভয়াবহরকম কমে যেতে পারে শঙ্কায় দ্রুত কাজ করে যাচ্ছেন কালকা, যেন পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার ‘ডিপ ফ্রিজ’ কন্ডিশনের মধ্যে কাউকেই খোলা আকাশের নিচে থাকতে না হয়।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ ভয়াবহ ঠাণ্ডা থাকবে বলে পূর্বাভাসে ধারণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া বিভাগ। মধ্যপশ্চিমাঞ্চল ও নিউ ইংল্যান্ডের প্রায় ৯ কোটি মানুষকে শূন্য ডিগ্রি কিংবা তার নিচের তাপমাত্রার মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

এর মধ্যে আড়াই কোটি লোককে মাইনাস ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচের তাপমাত্রার সঙ্গে লড়তে হবে। তীব্র এ শীতের সঙ্গে ঠাণ্ডা বাতাস কয়েক মিনিটের মধ্যেই যে কাউকে ‘ফ্রস্টবাইটে’ আক্রান্ত করতে পারে বলেও সতর্ক করেছে মার্কিন আবহাওয়া বিভাগ।

বাতাসের কারণে ডাকোটা ও উত্তর মিনোসোটায় মঙ্গলবার সকালের তাপমাত্রা মাইনাস ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস অনুভূত হতে পারে বলেও জানিয়েছে তারা। একই কনকনে বাতাস বয়ে যাবে মিনেপোলিস, মিলোয়াউকি, শিকাগো ও ডেট্রয়টের উপর দিয়ে।

ঠাণ্ডা বাতাসে দক্ষিণের ইলিনয় ও ইন্ডিয়ানা রাজ্যের উত্তরের তাপমাত্রাও মাইনাস ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে মাইনাস ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মতো অনুভূত হতে পারে।

উত্তর মেরুর মতো এ শীত যুক্তরাষ্ট্রের বেশকিছু অঞ্চলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড ভেঙে দিতে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

শিকাগোর সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড ছিল মাইনাস ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ১৯৮৫ সালের ২০ জানুয়ারির এ রেকর্ড এবার ভেঙে যেতে পারে বলেই অনুমান অনেকের। বৃহস্পতিবার সকালে শহরটির তাপমাত্রা মাইনাস ২৭ ডিগ্রির কাছাকাছি থাকতে পারে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।

ইউরোপীয় একটি পূর্বাভাস মডেলে অবশ্য চলতি সপ্তাহেই শহরটির তাপমাত্রা মাইনাস ২৯ ডিগ্রিতে পৌঁছাবে বলে ধারণা দেয়া হয়েছে।

তীব্র শীতে ফার্গো ও নর্থ ডাকোটার বেশকিছু উৎসব বাতিল হয়ে গেছে। টুইন সিটিজ বাতিল করেছে উইন্টার কার্নিভাল। মিনেসোটা ও উইসকনসিন বিশ্ববিদ্যালয়ও কার্যক্রম স্থগিত রেখেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য