ভেনেজুয়েলায় নতুন বিক্ষোভের ডাক গুইদোরভেনেজুয়েলায় প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর ওপর চাপ বাড়তে থাকার মধ্যে নতুন করে রাস্তায় বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা ও স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদো।

বিশ্বের বহু দেশ গুইদোকেই ভেনেজুয়েলার বৈধ নেতা হিসাবে স্বীকৃতি দিচ্ছে। ওদিকে, প্রেসিডেন্ট মাদুরো তার বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান ঘটানোর চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ করে ক্ষমতা আঁকড়ে আছেন।

রাশিয়া ও চীন মাদুরোকে সমর্থন দিচ্ছে। এর পাশাপাশি মাদুরো দেশের সামরিক বাহিনীর শক্তিও তার হাতে আছে তা দেখানোর চেষ্টা করছেন।

ওদিকে, এ সামরিক শক্তিকেই মাদুরোর বিপক্ষে দাঁড় করানোর চেষ্টায় গুইদো সোমবার নতুন করে বিক্ষোভ ডেকেছেন। বিরোধীদলের সমর্থক এবং সমমনা মানুষদেরকে বুধবার রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

‘সাধারণ ক্ষমার’ প্রস্তাবের লিফলেট বিলিরও আহ্বান জানান গুইদো। সামরিক বাহিনীর সদস্যদের এ আইনি সুরক্ষা দিয়ে তাদেরকে মাদুরোর বিরুদ্ধে দাঁড়াতে উৎসাহিত করতেই এ পদক্ষেপ।

সোমবার এক টুইটে গুইদো বলেন, “দেশের প্রতিটি আনাচে-কানাচে পরিবর্তনের চালিকাশক্তি হিসাবে আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।”

তাছাড়া, টুইটারে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে গুইদো ৩০ জানুয়ারি বুধবার দুইঘন্টার ধর্মঘটেরও ডাক দেন। সশস্ত্র বাহিনীকে জনগণের পাশে দাঁড়ানোর দাবিতে এ ধর্মঘট ডাকেন তিনি।

গত ২৩ জানুয়ারি ভেনেজুয়েলায় সরকার বিরোধী এক সমাবেশে প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো সরকারকে অবৈধ বর্ণনা করে গুইদো নিজেকে ভেনেজুয়েলার ‘অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট’ ঘোষণা করেন। তারপর থেকেই দক্ষিণ আমেরিকার তেলসমৃদ্ধ দেশটিতে চূড়ান্ত রাজনৈতিক অস্থিরতা দেখা দিয়েছে।

গুইদো নিজেকে নেতা ঘোষণার পরপরই যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডাসহ দক্ষিণ আমেরিকা এবং ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ তাকে স্বীকৃতি দেয়। রোববার ইসরায়েল এবং এরপর অস্ট্রেলিয়াও গুইদোকে সমর্থন দিয়েছে। অন্যদিকে, রাশিয়া, চীন ও তুরস্কসহ কয়েকটি দেশ প্রেসিডেন্ট মাদুরো সরকারের প্রতি তাদের সমর্থন জানিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য