প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগদ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ভারতের এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যে অভিযুক্ত ৪২ বছর বয়সী ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ঘটনার বিস্তারিত সম্পর্কে জানা যায়, মঙ্গলবার হায়দরাবাদ থেকে ২৯৫ কিলোমিটার দূরে কৃষ্ণা জেলার একটি আপার সরকারি প্রাইমারি স্কুলে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, অভিযুক্ত ওই প্রধান শিক্ষক একটি ফাঁকা ঘরে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের শিকার হয়ে ওই স্কুল ছাত্রী ঘটনার পর কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি ফেরে। শিশুটির শরীরে রক্ত ও ক্ষতের চিহ্ন দেখে দুশ্চিন্তায় পড়ে পরিবারের লোকজন। এরপর শিশুটি কান্নারত অবস্থায় পুরো ঘটনা বলে।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে আরো বলা হয়েছে, শিশুটিকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া শিশুটির শরীরের রক্ত বন্ধে দেওয়া হয়েছে চারটি সেলাই।

শিশুটির পরিবার তাদের মেয়ের ভবিষ্যৎ ও মান-সন্মানের কথা ভেবে প্রথমে থানায় অভিযোগ করতে অসম্মতি জানায়। পরবর্তীতে এক এক মানবাধিকার কর্মীর সহযোগিতায় থানায় মামলা দায়ের করে শিশুটির মা।

অন্ধ্রপ্রদেশের মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী গান্তা শ্রীনিবাস ঘটনা জেনে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে সাসপেন্ড করার নির্দেশ দেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য