পার্বতীপুর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে অধ্যাপিকা সুলতানা নাসরিন মনোনয়ন প্রত্যাশী মো: জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে দলীয় প্রার্থীতা প্রত্যাশা করেছেন উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদিকা ও অধ্যাপিকা সুলতানা নাসরিন। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের একজন নিবেদিত প্রান কর্মী হিসেবে দলীয় প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চায়।

এজন্য দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন তিনি। দীর্ঘদিন থেকে পার্বতীপুর উপজেলায় দলীয় কর্মকান্ড পরিচালনা সহ সামাজিক কার্যক্রমগুলো সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করে জনমানুষের মাঝে পরিচিত হওয়াসহ দল তথা বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড তুলে ধরেছেন। সে সাথে তৃণমূল পর্যায়ের সর্বস্তরের মানুষের সার্বিক সহযোগিতায় নিবেদিত থেকে কাজ অব্যাহত রেখেছেন।

এ কারণে নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের সাথে সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটেছে। যা আগামী নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিজয়ী হওয়ার ক্ষেত্রে ব্যাপকভাবে কাজ করবে। কেননা তিনি উপজেলার বেলাইচন্ডী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও সুরভী শিক্ষা কমপ্লেক্স এর প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলহাজ্ব মাহতাব উদ্দিন সরকারের পুত্র বধু। তার পারিবারিক ও রাজনৈতিক পরিচিতি এলাকার মানুষের মাঝে ইতিবাচক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। যা নারী ভোটার সহ সর্বস্তরের জনগণের মাঝে সাড়া ফেলবে।

তাছাড়া তিনি সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ফিজারের অত্যন্ত ঘনিষ্ট ও স্নেহধন্য ব্যক্তিত্ব। এলাকার দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে তার ক্লিন ইমেজ সবার কাছে অত্যন্ত পরিচ্ছন্ন হওয়ায় তাকে নিয়ে ইতিমধ্যে উপজেলা জুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। তাকে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিলে দল নিশ্চিত বিজয় লাভ করবে। এতে এ পদটিতে বিএনপি দলীয় নেতৃর বদলে আওয়ামীলীগের জন্য ছিনিয়ে আনা সম্ভব হবে।

এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রার্থী সুলতানা নাসরিন বলেন, তৃণমূলসহ উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দসহ কর্মীরা যদি আমাকে যোগ্য মনে করেন তাহলে অবশ্যই মনোনয়ন দিবেন। আমাকে মনোনয়ন দিলে উপজেলার পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদটি আওয়ামীলীগের জন্য উপহার দিতে পারবো। আশা করি এ বিষয়ে দলীয় নেতাকর্মীরা সুচিন্তিত মতামত দিয়ে আমার মনোনয়ন প্রাপ্তিতে সহযোগিতা করবেন। সে সাথে আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সর্বাত্মক সহযোগিতার মাধ্যমে বিজয় ছিনিয়ে নিয়ে এ উপজেলার মহিলাসহ সর্বস্তরের মানুষের সেবা করার সুযোগ দিয়ে আমাকে কৃতজ্ঞতায় বাধিত করবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য