আইশ্যাডোতেই আনুন হাইলাইটারের এফেক্টযাঁরা সারাবছর খুব একটা মেকআপ করেন না, কিন্তু নতুন বছরের এই সময়টায় উজ্জ্বল হয়ে উঠতে চান, তাঁদের কিন্তু হাইলাইটার আলাদা করে কেনার দরকার নেই! বরং আইশ্যাডোর কিছু শেড বুদ্ধি করে ব্যবহার করলেই অবিকল হাইলাইটারের এফেক্ট পাবেন।

আসুন দেখে নিই, কীভাবে আইশ্যাডো দিয়েই আনতে পারেন হাইলাইটারের এফেক্ট!

কীভাবে বাছবেন শ্যাডোর রং?
১. ত্বকের আসল রঙের চেয়ে দু’ শেড হালকা আইশ্যাডো বেছে নিন। যাঁরা খুব ফরসা, তাঁরা সবচেয়ে হালকা রঙের অল্প শিমারি আইশ্যাডো বেছে নেবেন, আর যাঁরা শ্যামাঙ্গী তাঁরা বেছে নিন রোজ় গোল্ড বা ব্রোঞ্জের মতো শেড।

২. বড়ো মেকআপ ব্রাশে আইশ্যাডো নিন। যাঁদের ত্বক তেলতেলে, তাঁরা পাউডার আইশ্যাডো নিন, যাঁদের ত্বক শুকনো তাঁরা ক্রিম-বেসড শ্যাডো বাছবেন।

৩. যদি মেটালিক এফেক্ট আনতে চান, তা হলে লিকুইড আইশ্যাডোও বেছে নিতে পারেন! মেটালিক শেড রাতের পার্টির জন্য খুবই উপযোগী, অল্প লাগালেই মুখ নাটকীয় দেখাবে! এটা লাগানোও ফাউন্ডেশনের মতোই সহজ।

লাগানোর পদ্ধতি
১. মসৃণ ফিনিশের জন্য আগে ফাউন্ডেশন লাগিয়ে নেবেন, তারপর হাইলাইটার লাগাবেন।

২. হাইলাইটারের ঠিকঠাক প্রয়োগে আপনার মুখ অনেক বেশি ধারালো, কনট্যুরড দেখাবে। গালের উপরের হাড় বরাবর ও তার একটু উপরে ব্রাশ দিয়ে আইশ্যাডো লাগিয়ে নিন। গালের সবচেয়ে উঁচু অংশটাও বাদ দেবেন না, তাতে মুখে ডাইমেনশন আসবে। রগের কাছে গিয়ে ব্লেন্ড করে দেবেন।

৩. গালের নরম অংশে শ্যাডো হাইলাইটার লাগালে মুখ দ্যুতিময় দেখাবে ঠিক জাহ্নবীরই মতো।

৪. চোখের নিচে ডার্ক সার্কল রয়েছে? শ্যাডো হাইলাইটার দিয়ে নিখুঁতভাবে ঢেকে দিতে পারেন। চোখের ভিতরদিকের কোনাতেও ছুঁইয়ে নিন শ্যাডো। চোখ বড়ো আর উজ্জ্বল দেখাবে।

৫. নাকের ছোটখাটো ত্রুটিও হাইলাইটার দিয়ে ঢেকে দিতে পারেন অনায়াসে! নাকের উপরে লম্বালম্বি করে শিমারি আইশ্যাডো লাগিয়ে নিন। তারপর নাকের দু’ পাশে ত্বকের স্বাভাবিক রঙের চেয়ে এক বা দু’ শেড হালকা শ্যাডো লাগান। খুব স্বাভাবিক দেখতে লাগবে!

৬. জাহ্নবীর মতো শিশিরভেজা, স্নিগ্ধ রূপ চাইলে উপরের ঠোঁটের ঠিক মাঝখানে একছিটে হাইলাইটার লাগিয়ে নিন!

৭. আইশ্যাডোকে হাইলাইটার হিসেবে ব্যবহার করার সময় কিন্তু আইশ্যাডোর ব্রাশ ব্যবহার করলে চলবে না। হাইলাইটারের জন্য তৈরি ব্রাশই ব্যবহার করুন, অথবা ভরসা রাখুন আপনার আঙুলে।
তথ্যঃ ফেমিনা

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য