কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান মিজুআজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধি: একাদশ জাতীয় সংসদের রেষ কাটতে না কাটতেই শুরু হয়েছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ঢামাঢোল। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তথ্য অনুযায়ী আগামী মার্চে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রথম দফার উপজেলা নির্বাচন। আর তাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসীল ঘোষনা হতে পারে ফেব্রুয়ারিতেই। তাই সময় ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে সম্ভাব্য প্রার্থীরা নির্বাচনী দৌড় ঝাপ শুরু করেছেন।

বিশেষ করে দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় প্রার্থীদের দল থেকে মনোনয়ন নিতে হবে আর তাই তো সম্ভাব্য প্রার্থীরা নিজ যোগ্যতা যাচাইয়ের জন্য তৎপরতা শুরু করেছেন।

আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হওয়ার সম্ভবনা । নির্বাচনের ঘোষণা আসার পূর্বেই কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে কে কে প্রার্থী হতে চান তা নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা। ইতোমধ্যেই অনেকেই দলীয় মনোনয়ন চাওয়ার বিষয়টি জানান দিচ্ছেন।

আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদে আ’লীগ থেকে নাম শোনা যাচ্ছে, কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্নসাধারণ সম্পাদক ও চলবলা ইউনিয়নের সফল চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজু, জেলা আওয়ামী লীগ’র সহ-সভাপতি কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান তাহির তাহু। বর্তমান কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহাবুবুজ্জামান আহমেদেরও নাম শোনা যাচ্ছে।

আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদি বলে জানান সফল চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজু।

মিজানুর রহমান মিজু বলেন, দলীয় নেতা কর্মীরা চাইলে দলীয় মনোনয়ন পাব। না পেলে সিদ্ধান্ত ছেড়ে দিব দলীয় নেতাকর্মী ও জনগণের ওপর। তারা যদি আমাকে প্রার্থী হিসাবে চান তো প্রার্থী আমাকে হতেই হবে। কারণ আমার রাজনীতি মুলত জনগণকে নিয়ে। আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আমি চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে চাই। আশা করি দল আমাকে মনোনয়ন দিবেন।

জানা যায়, লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার ৭নং চলবলা ইউনিয়াের বর্তমান চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজু ১৯৭২ খ্রিঃ পহেলা আগস্ট চলবলা ইউনিয়াের নিথক গ্রামে জন্ম গ্রহন করেন। পিতা মরহুম আঃ সামাদ দীর্ঘ দিন ইউপির সদস্য ছিলেন। মাথা সুফিয়া বেগম গৃহিনী। বেলতলি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তার শিক্ষা শুরু।

১৯৮৭ সালে শিয়াল খোওয়া এসসি উচ্চ বিদ্যালয়ে থেকে এসসি পাস করেন। ১৯৯২ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অধীন স্নাতক ডিগ্রী ও পরে ইসলামের ইতিহাসে স্নাতকোওর ডিগ্রী লাভ করেন। সংগঠন সংবাদ পরিবেশনের মধ্য দিয়ে সাংবাদিক প্রবেশ করেন। কর্মজীবন শুরু হয় শিক্ষকতা দিয়ে। পেশাগত দায়িত্বের পাশাপাশি ’চ্যানেল আই’বার্তা সংস্থা ’ইউ.এন.বি’ও দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার জেলা সংবাদ পরিবেশক হিসাবে কাজ করছেন।

শিক্ষকতা মূল পেশা হলে ও জনসেবা আর শিক্ষা প্রতিষ্টান প্রতিষ্টায় এগিয়ে গেছেন এই তরুণ চেয়ারম্যান। তিনি প্রতিষ্টার করেছেন শিয়াল খোওয়া স্কুল এন্ড কলেজ, অচিন তলা দাখিল মাদ্রাসা সূর্যমুখী টেকনিক্যাল এন্ড বি, এম কলেজ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য