পীরগঞ্জে স্কুলে তালা পাঠদানে ব্যাহত ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে ঐতিহ্যবাহী উজ্জ্বলকোঠা উচ্চ বিদ্যালয়ে দুই জন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দাবী করা, আদালতে মামলা, শিক্ষকদের বেতন বন্ধ থাকাসহ নানা বিরোধের জের ধরে মঙ্গলবার সহকারী প্রধান শিক্ষক বিলকিস বানু স্কুল গেটে তালা ঝুলিয়ে বিদ্যালয় বন্ধ করে দিয়েছে।

দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক বিলকিস বানু নানা অনিয়ম, দূর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন বলে ওই স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য গোলাম ফারুক (মিঠু) জানান। তার কর্মকান্ডে এলাকায় শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

বর্তমানে বিদ্যালয়ে চেইন অব কমান্ড ভেঙ্গে পড়েছে। মারাত্বক ভাবে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে।

২০১৮ সালের জেএসসি পরীক্ষায় ৩২ জন ছাত্র-ছাত্রী ওই স্কুল থেকে জেএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়েছে। জানা যায়, ওই স্কুলে প্রধান শিক্ষকের পদ শুন্য হওয়ার পর ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে বিলকিস বানুকে দায়িত্ব দেয় ম্যানেজিং কমিটি।

ওই বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পত্রিকায় প্রকাশ করা হলে বিলকিস বানু, এবাদুল ইসলাম, আব্দুল খালেক সহ ৭ জন প্রার্থী আবেদন করেন।

বিলকিস বানু প্রধান শিক্ষক পদে আবেদনকারী হওয়ায় তিনি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব ছেড়ে দিয়ে ওই স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক বাবু উত্তম কুমারকে ম্যানেজিং কমিটি নিয়ম তান্ত্রিক ভাবে ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে তাকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দেন। ওই রেজুলেশনে বিলকিস বানুর স্বাক্ষর রয়েছে।

উত্তম কুমার ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করা অবস্থায় বিলকিস বানু বে-আইনীভাবে নিজেকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দাবীকরে বিদ্যালয়ে প্রশাসনিক কার্যক্রম বীরর্দপে চালিয়ে যাচ্ছেন। ওই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি গয়া রাম রায় জানায়, বিলকিস বানু বিদ্যালয়ে বে-আইনী ভাবে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দাবী করে স্কুলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।

অপরদিকে বিলকিস বানু জানান, আমাকে ম্যানেজিং কমিটি পুনরায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দিয়েছে।

বিষয়টি এলাকার সুশীল সমাজ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য