সৈয়দপুরে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে কতিপয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছে। এরই প্রতিবাদে ১৪ জানুয়ারি সৈয়দপুর প্রেস ক্লাবের সামনে ঘন্টাব্যাপি মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রী ও যুবমৈত্রী সৈয়দপুর উপজেলা কমিটি।

এ মানববন্ধন কর্মসূচিতে সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়। এ সময় বক্তব্য বলেন বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রী সৈয়দপুর উপজেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক তৌফিক আহমেদ লিমন, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. শাহিন হোসেন, যুবমৈত্রী নেতা তনুজ হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক জাহিদুল ইসলাম, ওয়ার্কার্স পার্টির সদস্য শেখ ফজলুল হক বাবু, ওয়ার্কার্স পার্টি সৈয়দপুর উপজেলা শাখার সম্পাদক রুহুল আলম মাস্টার।

তারা বলেন সৈয়দপুরের বিভিন্ন স্কুল এবং কলেজ, অতিরিক্ত ভর্তি ফি, অতিরিক্ত মাসিক বেতন, প্রতি বছর সেশন ফি আদায়, সেশন শেষ হওয়ার পরেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভেদে ৩ থেকে ৬ মাসের অতিরিক্ত বেতন গ্রহণসহ বিভিন্ন ধরনের বর্ধিত অর্থ আদায়ের প্রতিবাদে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

তাদের দাবি অতিরিক্ত এ সকল অর্থ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায় করায় বর্তমানে অনেক অভিভাবক দিশেহারা হয়ে পড়েছে। অনেক স্কুল ও কলেজে ফ্রি, হাফফ্রি তুলে দেয়া হয়েছে। ফলে মেধাবী ও গরীব শিক্ষার্থীদের মেধাবিকাশে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে।

প্রত্যেক শ্রেণির ৪শ’ থেকে ৬শ’ টাকা পর্যন্ত মাসিক বেতন বৃদ্ধি করা হয়েছে। অতিরিক্ত অর্থ বৃদ্ধির কারণে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অভিভাবকরাও চিন্তিত হয়ে পড়েছে। এ বিষয়গুলো খতিয়ে দেখতে বক্তারা শিক্ষা মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য