নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে নদীর বালু উত্তোলনে জড়িত থাকার দায়ে জমির মালিকের ১৫ দিনের কারাদ- প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় কেশবা গ্রামের যমুনেশ্বরী নদীর পাড় থেকে বালু বহনকারী দুটি ট্রলি ও বালু উত্তোলনের সরঞ্জামাদি আটক করা হয়েছে।

App DinajpurNews Gif

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে ওই এলাকার তিন বালু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে সদর ইউনিয়ন তহশিলদার থানায় মামলা দায়ের করেছেন। উত্তোলকৃত বালু জমিতে রাখতে দেয়ায় সহায়তাকারী হিসেবে কেশবা গ্রামের আবুবক্করের ছেলে আহাম্মাদ আলী এ দন্ডপ্রাপ্ত হন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আবুল কালাম আজাদ ওই দিন বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দন্ডাদেশ প্রদান করেন।

জানা যায়, কিশোরগঞ্জ শহরের কেশবা গ্রামের মাছুয়া পাড়া সংলগ্ন যমুনেশ্বরী নদী থেকে একটি চক্র দীর্ঘদিন ধরে বালু উত্তোলন ও বিক্রি করেন। ওই দিন ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে অবৈধ বালু ব্যবসায়ী চক্রটি সটকে পড়েন। তাদের উত্তোলনকৃত বালু ৩ হাজার টাকার বিনিময়ে নদীর তীর সংলগ্ন আহম্মাদ আলীর জমিতে স্তুপ করে রাখেন।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে জমির মালিককে ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই দন্ডাদেশ প্রদান করেন। কিশোরগঞ্জ থানার ওসি হারুন অর রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ভ্রাম্যমাণ আদালতে দন্ডপ্রাপ্ত ওই ব্যক্তিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য