নির্বাচনী সহিংসতাদিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর বিরল উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে হৃদরোগে ১ ভোটারের মৃত্যু হয়েছে।

দিনাজপুর বিরল থানার অফিসার্স ইনচার্জ এটিএম গোলাম রসুল জানান, দিনাজপুরের বিরল উপজেলার শহরগ্রাম ইউনিয়নের মন্ডলপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে রোববার দুপুর ১২টায় আওয়ামী লীগ দলীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মুরাদ নেতাকর্মীদের নিয়ে ভোট কেন্দ্রে যায়।

এসময় ওই কেন্দ্রে বিএনপির নেতাকর্মীরা তাদের উপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায়। উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় পরিস্থিতি উত্তেজনাপূর্ণ হলে ভোটার কিনু মোহাম্মদ (৬৫) আতঙ্কগ্রস্ত ও হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে ঘটনাস্থলে মৃত্যুবরণ করেন। কিনু মোহাম্মদ বিরল উপজেলার উত্তর লক্ষিপুর গ্রামের চেন্দু মোহাম্মদের পুত্র।

সংঘর্ষে আহত বিরল উপজেলার শহরগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহমান মুরাদ (৩৫)কে দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত অপর ৪ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

পুলিশের সূত্রটি জানায়, গোলযোগের খবর পেয়ে ওসি গোলাম রসুল সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। তিনি ঘটনাস্থলে মৃত কিনু মোহাম্মদের পুত্র আজিজার রহমান ও তার আত্মীয়-স্বজনের সাথে কথা বলে নিশ্চিত হন কিনু মোহাম্মদ পূর্ব থেকেই হৃদ রোগে ভুগছিল।

তিনি ভোট দিতে এসে উভয় পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে হৃদ রোগে আক্রান্তে মারা যান। তিনি জানান, ময়না তদন্তের পর মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে। এই কারণে তিনি পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলে ময়না তদন্তের ব্যবস্থা করবেন।

তবে মৃতের ছেলে আজিজার রহমান বাবু ও সাগর মিয়া জানান, তারা ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ দাফন করবেন। মৃত্যুর পরে তার বাবার লাশ অহেতুক কাটা-ছেড়া করতে তারা রাজি নন। এই ঘটনায় বিরল থানায় ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য