গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে জমি গ্রহণের অনুরোধআরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের অন্ধভক্ত গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কচুয়া ইউনিয়নের সতিতলা গ্রামের কৃষক রফিকুল ইসলাম রফিক।

জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতা গ্রহণের পর উত্তরবঙ্গের মঙ্গা মুক্ত করে ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেন। এজন্য বঙ্গবন্ধু ভক্ত রফিকুল ইসলাম রফিক সাঘাটা উপজেলায় বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি জাদুঘর নির্মাণ করা প্রয়োজন বলে মনে করেন।

তিনি এই স্মৃতি জাদুঘর নির্মাণের জন্য তার কষ্টার্জিত ১৯ শতক জমির মধ্যে ২০১৫ সালে ৩ শতক জমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে রেজিষ্ট্রি দলিল করে দেন।

বুধবার গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কৃষক রফিকুল ইসলাম রফিকের পক্ষে এসব তথ্য উপস্থাপন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় ২০০৮ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবহেলিত উত্তরবঙ্গে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকাণ্ড করেন।

এর ফলে আন্তর্জাতিক মহলেও বাংলাদেশের ভাবমুর্তি উজ্জল হয়েছে। এই উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ফলে অসংখ্য দরিদ্র মানুষ সুখের মুখ দেখেছেন। যার ফলে দরিদ্র কৃষক রফিকুল ইসলাম রফিকও পরিশ্রম করে ১৯ শতক জমি ক্রয় করতে সক্ষম হন।

এই রফিকুল ইসলাম রফিক সাঘাটার সতিতলা গ্রামের আবুল হোসেন প্রধানের ছেলে। তিনি কৃষি কাজের পাশাপাশি পল্লী বিদ্যুতের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। সংবাদ সম্মেলনে এই জমি গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জাপান- বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থা রংপুর বিভাগের সভাপতি সুশীল চন্দ্র সরকার মুক্তিযোদ্ধা একরামুল হক সরকার, হীরেন্দ্র নাথ দাস, মেহেদী হাসান সাফেল, মো. সাইফুল ইসলাম প্রধান, গাজী মো. শহিদুল ইসলাম, সাংবাদিক আনোয়ার হোসেন, মো. লিটন সরকার প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য