আফগানিস্তানে সরকারি ভবনে বন্দুকধারীদের হামলায় নিহত ৪৩আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে একটি সরকারি দপ্তরের কম্পাউন্ডে জঙ্গিদের হামলায় অন্তত ৪৩ জন নিহত হয়েছেন।

আফগানিস্তানের কর্মকর্তাদের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, সোমবার বিকালে কাবুলের পূর্বাংশে দেশটির সমাজকল্যান মন্ত্রণালয়ের কম্পাউন্ডে এক গাড়ি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় এক আত্মঘাতী বোমারু, এ সময় স্বয়ংক্রিয় রাইফেলে সজ্জিত অপর হামলাকারীরা শহীদ ও প্রতিবন্ধি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভবনে হামলা চালিয়ে এর কর্মীদের জিম্মি করে এবং তাদের একটি অংশ ওই কম্পাউন্ডের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা বাহিনীগুলোর সঙ্গে বন্দুক লড়াই শুরু করে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওয়াহিদ মাজরোহ জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল থেকে এ পর্যন্ত ৪৩টি মৃতদেহ ও ১০ জন আহতকে অ্যাম্বুলেন্স যোগে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহতদের অধিকাংশই সরকারি কর্মচারী।

হামলাকারীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর বন্দুক লড়াই সাত ঘন্টাব্যাপী স্থায়ী হয় এবং এ সময় এক পুলিশ কর্মকর্তা ও তিন জঙ্গি নিহত হন।

সোমবার রাতে অভিযান শেষ করার আগেই ওই ভবন থেকে সাড়ে তিনশরও বেশি লোককে সরিয়ে নেয় আফগানিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীগুলো।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কোনো জঙ্গিগোষ্ঠী এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে এর আগে তালেবান বিদ্রোহীরা আফগানিস্তানের সরকারি দপ্তর, বিদেশি দূতাবাস ও সামরিক ঘাঁটিতে এ ধরনের হামলা চালিয়েছিল।

ঘটনাস্থলের কাছাকাছি বসবাস করা এক প্রত্যক্ষদর্শী রয়টার্সকে জানিয়েছেন, গোলাগুলি থামার পর অ্যাম্বুলেন্সগুলোকে ঘটনাস্থলের দিকে যেতে দেখেছেন তিনি। এ ঘটনায় আহত অন্তত ২০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কাছেই আরেক সরকারি ভবনে কর্মরত একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির আওয়াজ শুনে কর্মচারীরা নিজ নিজ দপ্তরের দরজা বন্ধ করে ভিতরে অবস্থান করছিলেন।

সাত ঘন্টা ধরে দুপক্ষের মধ্যে গোলাগুলিতে সময় কম্পাউন্ডজুড়ে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়। এ সময় ভবনের দ্বিতীয় তলায় আগুন ধরে যায় বলে স্থানীয় নিউজ চ্যানেলগুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

হতাহতের সংখ্যা পরিবর্তিত হতে পারে বলে এর আগে জানিয়েছিলেন আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাজিব দানিশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য