দিনাজপুরে পথসভায় মীর্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীরদিনাজপুর সংবাদাতাঃ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, মানুষ এখন স্বৈরশাসন থেকে মুক্তি চায়, মানুষ তার অধিকার চায়, কৃষক তার উৎপাদিত ফসলের ন্যায্য মূল্য চায়, শ্রমিক তার ন্যায্য মজরী চায়, মানুষ এখন স্বৈরশাসনের অবসান চায়, এই জন্য তিনি দেশকে স্বৈরশাসন থেকে রক্ষা করতে আগামী ৩০ ডিসেম্বর ধানের শীষ মার্কায় ভোট দেয়ার আহবান জানান।

শনিবার বেলা ১২টায় দিনাজপুর-৪ (খানসামা-চিরিরবন্দর) নির্বাচনী এলাকার চিরিরবন্দর কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ ও দিনাজপুর-৫ (ফুলবাড়ী-পার্বতীপুর) নির্বাচনী এলাকার পার্বতীপুর বাস টার্মিনালে নির্বাচনী পথসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন।

তিনি বলেন, এই সরকার বলেছিল, ঘরে ঘরে চাকুরি দেবে । কিন্তু চাকুরি না দিয়ে ঘরে ঘরে মামলঅ দিয়েছে। যাদের চাকুরি দিয়েছে তাদেরও ডিএনএ টেষ্ট করা হয়েছে। আওয়ামীলীগ ঘরানার হলে চাকুরি হয়েছে, তাতেও দিতে হয়েছে কমপক্ষে ১৫ লাখ টাকা। ১০ টাকা কেজি চাল কাওয়াবে, কৃষককে সার বিনা মূল্যে দিবে। কিন্তু তারা এই কথা রক্ষা করেননাই, উপরোন্ত ৩ টাকার সার ১২শ টাকা হয়েছে। কৃষক তার উৎপাদিত ফসলের দাম পায়না।

মীর্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীর আরো বলেন, এখন বৃটিশরা নাই, পাকিস্তান নাই, এখন তার চেয়ে বড় স্বৈরাচার আওয়ামীলীগ বুকে চেপে বসেছে। পুলিশ,প্রশাসন, আদালত সব পক্ষে নিয়েও ভয় পাচ্ছে । নির্বাচন কমিশনকে ঠটিজগন্নাথ বানিয়ে রেখেছে। তার পরও আমরা নির্বাচন করছি । আমরা জানি এ সরকার ক্ষমতায় থেকে সুষ্ঠ নির্বাচন করতে পারবেনা। এরশাদ ৯ বছর মাসন করেছে। মানুষ তাকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিয়েছে । এখন মানুষ গান গাইছে “আগে জানলে তোর ভাঙ্গা নৌকায় উঠতামনা” ।

তিনি বলেন, গত ১০ বছর থেকে বিরোধী দলের নেতা কর্মিরা বাড়ীতে থাকতে পারেনি, তিনি সরকারের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন রেখে বলেন কি অপরাধ করেছিল সেই মা, যার সন্তানকে তুলে নিয়ে গেছে, গত ৫ বছর থেকে সেই স্তানের কোন খোজ নাই। কি অপরাধ করেছে সেই বোন, যার স্বামীকে তুলে নিয়ে গেছে এখন পর্যন্ত তাদের খোজ নাই, কি অপরাধ করেছে সেই সন্তান তার পিতার কোন খোজ নাই। এখানে শেষ নয়, বিরোধী দলে হাজার হাজার নেতা কর্মিকে মিথ্যা মামলায় বছরের পর বছর কারাগারে নির্যাতন করছে।
মীর্জা ফকরুল ইসলাম বলেন এখন মানুষ এই খুন গুম নির্যাতনের হাত থেকে মুক্তি চায়, আমাদের মা বোন নিরাপত্তা চায়, বেকারেরা চাকুরী চায়, কৃষক তার উৎপাদিত ফসলের ন্যায্য মূল্য চায়, শ্রমিক তার ন্যায্য মজুরী চয়ি, আমরা নাগীকরা শান্তিতে বাস করতে চাই। এই খুন গুম দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে, নাগরীককে শান্তি দিতে হবে, এই স্বৈরাচারী শাসন বন্ধ করতে হবে এই জন্য আগামী ৩০ ডিসেম্বর ধানের শীষ মার্কায় ভোট দিতে হবে।

তাই আসছে ৩০ ডিসেম্বর খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে ও তারেক জিয়াকে দেশে ফেরাতে ধানের শীষে ভোট দিয়ে বিএনপিকে বিজয়ী করুন।

নির্বাচনী পথসভায় চিরিরবন্দরে সভাপতিত্ব করেন চিরিবন্দর উপজেলা বিএপির সভাপতি মজিবর রহমান শাহ ও পার্বতীপুরে পথসভায় উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জালাল উদ্দিন সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন চিরিরবন্দর উপজেলার ধানের শীষের প্রার্থী আকতারুজ্জামান মিয়া দিনাজপুর-৫ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী ও জেলা বিএনপির আহবায়ক এজেডএম রেজওয়ানুর হক, খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আব্দুল জলিল, সাবেক এমপি রেজিনা ইসলাম প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য