থেরেসা মেকে ‘স্টুপিড উইম্যান’ বললেন করবিনব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মেকে ‘স্টুডিপ উইম্যান’ বলার অভিযোগ উঠেছে দেশটির বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিনের বিরুদ্ধে। গতকাল বুধবার পার্লামেন্টে বিতর্ক চলাকালে করবিন এমন মন্তব্য করেন বলে বিভিন্ন মিডিয়া জানিয়েছে।

ব্রেক্সিট নিয়ে প্রশ্নোত্তর পর্বে করবিনের ঠোঁটের নড়াচড়া দেখে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়। টিভি ক্যামেরায় এটি ধরা পড়ে। তবে করবিন এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, যারা দেশের এই সংকটের সময়ে এ ধরনের তথ্য প্রচার করছেন তারা দেশের ক্ষতি করছেন।

এই অভিযোগ ওঠার পর হাউজ অফ কমন্সের স্পিকার জন বারকো বলছেন, ঘটনাটি তিনি দেখতে পাননি এবং সব এমপিকে বক্তব্যের ভিত্তিতে গ্রহণ করা উচিত। তবে কনজারভেটিভ এমপিরা বলছেন, করবিনের ব্যাখ্যায় সন্তুষ্ট নন এবং তার ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুলেছেন।

কমন্সে দেয়া বক্তব্যে করবিন বলেছেন, ‘আজ প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তর পর্ব চলার সময় আমি তাদের কথাই বলছিলাম, যারা দেশের এই সংকট নিয়ে চলা একটি বিতর্ককে কৌতুকে পরিণত করতে চাইছে, তাদেরকেই আমি ‘স্টুপিড পিপল’ বলেছি। আমি প্রধানমন্ত্রী বা অন্য কাউকে উদ্দেশ্য করে ‘স্টুপিড উইমেনের’ মতো শব্দ ব্যবহার করিনি।’-বিবিসি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য