ফিলিপাইনে মাদকবিরোধী যুদ্ধে নিহতের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়েছেফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুয়ার্তের মাদকবিরোধী যুদ্ধে সরকারিভাবে নিহতের সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়েছে। দেশটির মাদক দমন সংস্থার পরিসংখ্যানের বরাতে এখবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান। তবে সরকারি এই পরিসংখ্যান মানবাধিকার সংস্থাগুলোর দাবির চেয়ে অনেক কম।

ফিলিপাইনের মাদক দমন সংস্থার এক মুখপাত্র ড্যারিক ক্যারিওন জানান, ২০১৬ সালের জুলাই থেকে ২০১৮ সালের নভেম্বর পর্যন্ত ৫০৫০ জন নিহত হয়েছেন। এদের বেশিরভাগ নিহত হয়েছেন পুলিশের হাতে।

২০১৬ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পরই মাদক ব্যবহারকারী ও ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরুর ঘোষণা দেন দুয়ার্তে। দাভাও শহরের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় যে নৃশংস অভিযানের সূচনা তিনি করেছিলেন সেটারই ধারাবাহিকতায় এই মাদকবিরোধী যুদ্ধ শুরু হয়।

সরকারি হিসেবে মাত্র ৫০৫০ জন নিহতের কথা বলা হলেও মানবাধিকার গোষ্ঠী ও নিহতদের পরিবারের পক্ষে আন্দোলনকারীদের এই সংখ্যা অনেক বেশি। তাদের মতে নিহতের সংক্যা ১২ থেকে ২০ হাজার হতে পারে। মানবাধিকার সংস্থাগুলোর দাবি, অনেক হত্যাকাণ্ড অলিখিত রয়ে গেছে। কারণ সেগুলো বেসরকারি মিলিশিয়ার ডেথ স্কোয়াড পরিচালনা করেছে।

গত সপ্তাহে ফিলিপাইনের মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান চিতো গ্যাসকন জানান, মাদকবিরোধী যুদ্ধে নিহতের সংখ্যা ২৭ হাজার হতে পারে। পুলিশ মাদকবিরোধী অভিযানের তথ্য ধামাচাপা দেওয়ার কারণে মৃত্যুর ঘটনাগুলো তদন্ত করা কঠিন হয়ে পড়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য