জলঢাকায় জামাত নেতাকে গ্রেফতারের দাবিতে সড়ক অবরোধনীলফামারীর জলঢাকায় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা ফয়সাল মুরাদকে গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও সড়ক অবরোধ কর্মসুচি পালন করছে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডসহ স্বাধীনতা স্বপক্ষের কয়েকটি সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

আজ বুধবার দুপুরে পৌরসভার জিরোপয়েন্ট মোড়ে বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে সড়ক অবরোধ করে তারা। পরে থানা অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান চিহ্নিত আসামীদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে অবরোধকারীরা কর্মসুচি আগামী রবিবার পর্যন্ত স্থগিত করে।

এসময় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের আহবায়ক আসাদুজ্জামান স্টালিনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক সহিদ হোসেন রুবেল, জেলা জাসদ সভাপতি আজিজুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হামিদুর রহমান, কেন্দ্রীয় যুবলীগ সদস্য ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুর, উপজেলা জাসদ সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল ইসলাম মিতু, যুবলীগ আহবায়ক সারোয়ার হোসেন সাদের, রিক্সা শ্রমিকলীগ সভাপতি ও যুবলীগ নেতা এনামুল হক, পৌর যুবলীগ যুগ্ন আহবায়ক লাভলুর রশিদ প্রমুখ।

বিক্ষিপ্ত নেতাকর্মীরা ভাইস চেয়ারম্যান মুরাদকে স্বাধীনতা বিরোধী অক্ষা দিয়ে বলেন, ফয়সাল মুরাদ চিহ্নিত জামায়াতের নাশকতা মামলার আসামী। তারা অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার ইউএনওর কার্যালয় ইউএনও উপ¯ি’তিতে ভাইস চেয়ারম্যান মুরাদ বাংলাদেশকে অস্বীকার করে বিজয় দিবসকে নিয়ে ধৃষ্টতা মুলক বক্তব্য রাখেন।

পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে ¯’ানীয় স্বাধীনতা স্বপক্ষের সংগঠনগুলোর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। রাতে সাবেক পৌর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মানিকুজ্জামান মানিক বাদি হয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজাউদ্দৌলা ও ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির উপজেলা সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গফ্ফারকে স্বাক্ষী করে ভাইস চেয়ারম্যান ফয়সাল মুরাদসহ বিএনপি জামায়াতের ৫ জন কে আসামি করে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা দায়ের করেন।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজাউদ্দৌলা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আপনাদের সাথে আমিও একাত্ততা প্রকাশ করেছি এবং ওই মামলার ১নং স্বাক্ষী হয়েছি। তিনি আরো বলেন ঘটনা সম্পর্কে আমি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলেছি।

উল্লেখ্য মঙ্গলবার বিকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান ফয়সাল মুরাদ কথা প্রসঙ্গে বলেন, ১৬ ডিসেম্বরকে পিছিয়ে দেন এবং আমি এদেশ এবং স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব মানিনা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য