সর্বাঙ্গাসন অভ্যেস করার উপযোগিতাইদানীং সাধারণ মানুষের মধ্যেই যোগব্যায়ামের ভালো দিকগুলি নিয়ে সচেতনতা অনেক বেড়েছে৷ সেলেব্রিটিরাও তাঁদের যোগচর্চার ছবি অহরহ পোস্ট করতে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়ায়, জনতার উপর তার প্রভাবও পড়ে৷ যোগের অজস্র গুণ আছে, স্ট্রেস কমাতে, শরীরের ফ্লেক্সিবিলিটি বজায় রাখতে তা দারুণ কার্যকর৷ তবে মেয়েরা 30 পেরোলেই যে অজস্র ধরনের শারীরিক সমস্যায় ভুগতে আরম্ভ করেন, তার অনেকটার জন্যই দায়ী হরমোনের ভারসাম্যহীনতা৷ সর্বাঙ্গাসন থাইরয়েড গ্ল্যান্ডটির কর্মক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এবং থাইরয়েড নিয়ন্ত্রণে থাকলেই অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যায়৷

নাম শুনলেই বোঝা যাচ্ছে, ‘সর্বাঙ্গাসন’ সর্ব অঙ্গের উপকারে লাগে এমনই একটি আসন৷ যোগ গুরু সোহম বোস বলছেন, ‘‘মেয়েদের ইউটেরাস ও থাইরয়েড গ্ল্যান্ড সুস্থ রাখতে এই আসনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে৷ আপনার থাইরয়েড গ্ল্যান্ডটি যথাযথভাবে কাজ করলে তবেই শরীরের আকার একেবারে পারফেক্ট হবে৷ যাঁদের থাইরয়েড সংক্রান্ত কোনও সমস্যা থাকে না, তাঁদের ত্বক ঝকঝক করে, গালে ব্রণ বেরোয় না এবং সবচেয়ে বড়ো কথা হচ্ছে যে তাঁদের মাসিক ঋতুচক্রে কোনও সমস্যা হয় না৷ যদি নিয়ম করে সর্বাঙ্গাসন অভ্যেস করেন অল্প বয়স থেকে, তা হলে থাইরয়েডের প্রভাবে হওয়া অনেক সমস্যা এড়ানো সম্ভব৷’’

সন্তানের জন্মের পরও সর্বাঙ্গাসন অভ্যেস করলে খুব ভালো ফল পাওয়া যায়৷ ন’মাস গর্ভধারণ করার পর জরায়ু ভারী হয়ে যায়, যে লিগামেন্টগুলি তাকে ধরে রাখে, সেগুলির মধ্যে খানিকটা শিথিলতা আসে, জরায়ু তার জায়গা থেকে নিচের দিকেও নেমে আসতে পারে বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে৷ এই ধরনের সমস্যা এড়ানোর জন্য নিয়মিত সর্বাঙ্গাসন অভ্যেস করা আবশ্যক৷

কীভাবে করবেন সর্বাঙ্গাসন?
যোগা ম্যাটে পিঠ টানটান করে শুয়ে পড়ুন৷ কাঁধের উপর পুরো শরীরের ভর রেখে কোমর থেকে ধীরে ধীরে উপরের দিকে তুলে ধরতে হবে৷ ব্যালান্স বজায় রাখতে কোমরের কাছটা হাত দিয়ে ধরে রাখুন৷ আপনার পা একেবারে সমকোণে খাড়া থাকবে উপরের দিকে৷ এইভাবে 30 গুনে পা নামিয়ে নিন৷

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য