যুক্তরাষ্ট্রে তুষারঝড়ে নিহত ১, বিদ্যুৎবিহীন ৩ লাখরোববার নর্থ ও সাউথ ক্যারোলাইনা, টেনেসি, ভার্জিনিয়া ও ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার দক্ষিণাঞ্চলের ওপর দিয়ে ঝড়টি বয়ে যায় বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে।

রোববার এসব এলাকায় ৩০ সেন্টিমিটারেরও (এক ফুট) বেশি তুষারপাত হয়। তুষার, শিলা ও জমে যাওয়া বৃষ্টিতে ঢাকা পড়া সড়কগুলোতে কয়েকশ গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ছিটকে যায় এবং সংঘর্ষে পড়ে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

রোববার রাতে ও সোমবার এই অঞ্চলগুলোর অধিকাংশ এলাকার ওপর দিয়ে আরেকটি তুষারঝড় বয়ে যেতে পারে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে সতর্ক করা হয়েছে। এ সময় অতিরিক্ত আরও পাঁচ সেন্টিমিটার তুষারপাত ও শিলাবৃষ্টি হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

রোববার সকালে নর্থ ক্যারোলাইনার কিন্সটনের একটি নদীতে ১৮ চাকার একটি ট্রাক পাওয়া গেছে। ডুবুরিরা এই ট্রাকের চালকের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে।

একই অঙ্গরাজ্যের শার্লটের কাছে গাছ ভেঙে গাড়ির ওপর আছড়ে পড়ে একজন নিহত হয়েছেন।

রোববার সন্ধ্যায় দুই ক্যারোলাইনা, টেনেসি ও ভার্জিনিয়ার তিন লাখ ১০ হাজারেরও বেশি গ্রাহক বিদ্যুৎবিহীন ছিলেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে পাওয়ারআউটেজ ডট ইউএস।

ঝড়ের কারণে নর্থ ক্যারোলাইনার শার্লট ডগলাস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ ওই এলাকার অন্যান্য বিমানবন্দরে এক হাজারেরও বেশি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে, জানিয়েছে ফ্লাইট-ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ফ্লাইটঅ্যাওয়ার।

রোববার নর্থ ক্যারোলাইনার গভর্নর রয় কুপার জানিয়েছেন, জরুরি অবস্থা বজায় থাকবে এবং নর্থ ক্যারোলাইনা ন্যাশনাল গার্ড দুর্যোগ মোকাবিলায় সাড়া দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকবে।

এই অঙ্গরাজ্যে ঝড়ের প্রভাব কয়েকদিন পর্যন্ত বজায় থাকতে পারে বলে সতর্ক করেছেন কর্মকর্তারা।

সাউথ ক্যারোলাইনায় তুষারপাতের পর শিলাবৃষ্টি হওয়ায় তামপাত্রা শুন্যের কাছাকাছি নেমে গেছে বলে টুইটারে জানিয়েছে ক্যারোলাইনা ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট ডিভিশন।

গত সপ্তাহের মাঝমাঝি টেক্সাসের উপকূলে ঝড়টির উৎপত্তি হয় এবং এটি পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে আরকানসাস ও টেনেসির কয়েকটি এলাকার ওপর হিমশীতল বৃষ্টিপাতের কারণ হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য