সাবেক প্রেসিডেন্টদের ৬০ বিমান বিক্রি করবে মেক্সিকোনতুন বামপন্থি প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সাবেক প্রেসিডেন্টদের ব্যবহৃত বিলাসবহুল ৬০টি উড়োজাহাজ ও ৭০টি হেলিকপ্টার বিক্রির প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করেছে মেক্সিকো।

প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম পুরো দিন পার করার শেষ দিকে ভেরাক্রুজ রাজ্যের সালাপা শহরে এক সমাবেশে দেওয়া ভাষণে প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদর বলেছেন, “দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতিবিদদের ব্যবহার করা সব উড়োজাহাজ ও হেলিকপ্টার বিক্রি করে দিচ্ছি আমরা।”

এক সাথে গর্জে ওঠে এতে সম্মতি জানায় সমাবেশে উপস্থিত জনতা।

রোববার সকালে রাজধানী মেক্সিকো সিটিতে বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনারের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে দেশটির অর্থমন্ত্রী কার্লোস উরদুয়া জানান, ‘খুব শিগগিরই’ এ উড়োজাহাজটি বিক্রির জন্য রাখা হবে।

সংবাদ সম্মেলনের পর ফটোগ্রাফার ও ক্যামেরা ক্রুরা উড়োজাহাজটির ভিতরে প্রবেশ করে ঘুরে দেখেন। উড়োজাহাজটির সুপরিসর অভ্যন্তরের দেওয়ালে সরকারি দাপ্তরিক সিল ও ফ্ল্যাট স্কিন মনিটর দেখতে পান তারা। পাশাপাশি প্রেসিডেন্টের বেডরুম এবং দেখতে মার্বেলে মোড়া মনে হওয়া বাথরুমও দেখেন।

২১ কোটি ৮০ লাখ ডলার মূল্যের এই প্রেসিডেন্সিয়াল জেটটি ২০১২ সালের শেষ দিকে কেনা হয়েছিল। এটিসহ সরকারি ৬০টি উড়োজাহাজ ও ৭০টি হেলিকপ্টার বিক্রি করা হবে বলে জানিয়েছেন উরদুয়া।

পরে দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনারটি বোয়িংয়ের সুপারিশ পেতে সোমবার ক্যালিফোর্নিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় ভিক্টোরভাইল বিমানবন্দরে উড়ে যাবে, এরপর থেকে নতুন মালিকের জন্য অপেক্ষা করবে।

সালাপার সমাবেশে লোপেজ ওব্রাদর আরও কয়েকটি জনপ্রিয় নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির উল্লেখ করে সেগুলোও বাস্তবায়ন করার ঘোষণা দেন। এগুলোর মধ্যে সাবেক প্রেসিডেন্টদের পেনশনের সমাপ্তি টানা ও ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের বেতন হ্রাস করা অন্যতম।

এসব পদক্ষেপের মাধ্যমে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অর্থের সাশ্রয় হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

আড়ম্বরহীন জীবযাপনের জন্য পরিচিত লোপেজ ওব্রাদর মেক্সিকোর প্রেসিডেন্টের বাসভবন ও দপ্তর লোস পিনোসে বসবাস করবেন না বলে ঘোষণা করে একে সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে রূপান্তর করার নির্দেশ দিয়েছেন।

জুলাইয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বড় ধরনের জয় পেয়ে সাত দশকের মধ্যে মেক্সিকোর প্রথম বামপন্থি প্রেসিডেন্ট হন মেক্সিকো সিটির এ সাবেক মেয়র। এর আগে আরও দুইবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও নির্বাচিত হতে পারেননি তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য