চিকিৎসার জন্য আহত হুথি বিদ্রোহীদের ওমানে নেওয়া হচ্ছেচিকিৎসার জন্য ইয়েমেনের আহত হুতি বিদ্রোহীদের জাতিসংঘের একটি বিমানে করে ওমানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

শান্তি আলোচনার আগে আস্থার পরিবেশ তৈরির চেষ্টা হিসেবে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী, খবর বিবিসির।

সোমবার ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত রাজধানী সানা থেকে আহত ৫০ জন যোদ্ধাকে ওমানে নিয়ে যাওয়া হবে।

আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় সুইডেনে হুতিদের সঙ্গে সৌদি আরব সমর্থিত ইয়েমেনী সরকারের আলোচনা শুরু হবে বলে প্রত্যাশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

“জাতিসংঘের একটি ভাড়া করা বিমান সোমবার সানা আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে গিয়ে ৫০ আহত বিদ্রোহী, তিন ইয়েমেনি চিকিৎসক ও জাতিসংঘের এক চিকিৎসককে নিয়ে সানা থেকে মাসকাটে যাবে,” রোববার দিবাগত রাতে বলেছেন সৌদি জোটের এক মুখপাত্র।

ইয়েমেন বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত মার্টিন গ্রিফিথের অনুরোধে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই মুখপাত্র।

সুইডেনে দুপক্ষের মধ্যে আলোচনা শুরু হওয়ার আগে আস্থার পরিবেশ তৈরির উদ্দেশ্যে ওই অনুরোধে সম্মতি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সৌদি আরব সমর্থিত ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আব্দরাব্বু মনসুর হাদির ও ইরান সমর্থিত হুতিদের মধ্যে আলোচনা আবার শুরু করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে জাতিসংঘ। এর আগে সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘের উদ্যোগে জেনেভায় দুপক্ষের মধ্যে আলোচনা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও হুতিরা না যাওয়ায় আলোচনা ভেস্তে যায়।

ইয়েমেনের যুদ্ধের কারণে সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক মানবিক সংকট তৈরি হয়েছে। প্রায় চার বছর ধরে চলা এই লড়াইয়ে হাজার হাজার লোক নিহত হওয়ার পাশাপাশি লাখ লাখ মানুষ দুর্ভিক্ষের মুখে পড়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য