বধূবেশে রাস্তায় পাওয়া অজ্ঞাতনামা মেয়েটি এখন হাসপাতালেমেয়েটির নাম মিলা। বয়স অানুমানিক ১২ থেকে ১৩ বছর হবে। গত ২৭/১১/২০১৮ রাতে মেয়েটিকে অজ্ঞান অবস্থায় রাস্তা থেকে নিয়ে এসে ঢাকার একটি সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করান পুলিশ।তবে মিলার বাড়ি ঠাকুরগাও বা দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জের কোন এলাকায়।

মিলা স্বাধীন নামের একটা ছেলের কথা বলেছে।হাসপাতালে ভত্তির সময় মিলার গায়ে লাল বেনারশী শাড়ি,নাকে নাকফুল,হাতে ইমিটেশনের চুড়ি,কপালে টিপ সহ বধূবেশে অজ্ঞান অবস্হায় রাস্তায় পড়ে ছিলো।

গতকাল রাতে অামার এক প্রবাসী ফেসবুক বন্ধু মোঃ লাল ভাইয়ের মাধ্যমে ম্যাসেন্জারে খবরটি পাই ও মেয়েটির কিছু ছবি পাই।অাজ রাত ৯ টায় অামি মিলাকে দেখতে সরকারী ঐ হাসপাতালে যাই।অামি মেয়েটির নাম জানার চেষ্টা করেছি।তবে সে ঐ মুহুর্তে কথা বলার চেষ্টা করেও কথা বলতে পারছিলো না।

মিলার গলায় অাঘাতের দাগ মনে হয়েছে।কে বা কাহারা মেয়েটিকে শারীরিক নির্যাতন করে রাস্তায় ফেলে চলে গিয়েছিলো।বর্তমানে মিলা কানে শুনতে পারছে না,গলায় ফোলা দাগ অাছে।

মিলার সেবার জন্য অাগামিকাল অামরা একজন মহিলা সেবিকা নিয়োজিত রাখার চেষ্টা করবো ইনশাঅাল্লাহ।অাশা করি চিকিৎসা ও সেবা পেলে মেয়েটি খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে যাবে।

তবে সবার কাছে অনুরোধ রইলো পোষ্টটা শেয়ার করে মেয়েটির পরিবার খুঁজে পেতে সহযোগিতা করবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য