কাঞ্চন জংশনে যাত্রা বিরতির দাবীতে কাঞ্চন এক্সপ্রেস ট্রেন অবরোধবিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ শুক্রবার সকালে দিনাজপুরের বিরলে কাঞ্চন জংশনে পার্বতীপুর-ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড়গামী সকল ট্রেনের যাত্রা বিরতির দাবীতে এলাকাবাসী রেললাইন অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে। এ সময় সকাল সাড়ে ৯ টায় পঞ্চগড়গামী কাঞ্চন এক্সপ্রেস (মেইল ট্রেন) আটক করে এলাকাবাসী রাখলে স্টেশন মাষ্টার মোঃ ইদ্রিস আলী উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে ফোনে কথা বলে এলাকাবাসীকে যাত্রা বিরতির বিষয়ে আশ্বস্ত করলে ট্রেনটি আধাঘন্টা পর পূণরায় গন্তব্যে যাত্রা শুরু করে।

ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম ও সাবেক ইউপি সদস্য হাসান আলীসহ এলাকাবাসীর তোফাজ্জল হোসেন, তোবারক আলী, মোজাফ্ফর হোসেন, আনছার আলী, আরেফিন, মাহবুব, মোমিনুল ইসলাম, ইরফান আলী, আনছার আলী জানান স্বাধীনতার পূর্ববর্তী সময়ে পার্বতীপুর জংশন থেকে কাঞ্চন জংশন অতিক্রম করে বিরল রেল ষ্টেশন ও ভারতের রাধিকাপুর রেল স্টেশনে ট্রেন চলাচল করতো।

অপরদিকে পার্বতীপুর জংশন থেকে কাঞ্চন জংশন হয়ে বাজনাহার-মঙ্গলপুর-মোল্লাপাড়া-বোচাগঞ্চ রেল স্টেশন হয়ে ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড় জেলায় ট্রেন যাতায়াত করতো। সে সময় ৮ টি যাত্রীবাহি ট্রেন ও অসংখ্য মালবাহী ট্রেন কাঞ্চন জংশন স্টেশনে যাত্রা বিরতি দিয়ে যাত্রী সেবা দিয়ে আসছিল।

স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে কাঞ্চন এক্সপ্রেস, সেভেন আপ, কমিউটার ট্রেন এবং বর্তমান সরকারের আমলে ডেমু ট্রেনসহ পঞ্চগড়-ঢাকাগামী দ্রুতযান ও একতা এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল করছে। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় যাত্রীবাহী ৬টি ট্রেন কাঞ্চন জংশন দিয়ে নিয়মিত চলাচল করলেও একটিও ট্রেন এ জংশনে যাত্রা বিরতির সিডিউল রাখা হয়নি।

এর ফলে এলাকার ব্যবসায়ী, স্কুল-কলেজগামীসহ সাধারণ যাত্রীরা অসহনীয় দূর্ভোগের শিকার হয়ে দিনাজপুর রেল স্টেশন থেকে ট্রেনে যাতায়াত করতে হচ্ছে। তাই এলাকাবাসী যাত্রীদের দূর্ভোগ লাঘবে বাংলাদেশ রেলওয়ের রাজশাহী অঞ্চলের চীফ অপারেটিং সুপারিনটেনডেন্ট (সিওপিএস)সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে কাঞ্চন জংশনের নামে নামকরণ করা কাঞ্চন এক্সপ্রেস (৪১ আপ ও ৪২ ডাউন) মেইল ট্রেনসহ অন্যান্য ট্রেনসমূহ যাত্রা বিরতির দাবী জানিয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য