ইয়েমেনের হোদেইদাহে ফের লড়াই শুরুসৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী ও ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের মধ্যে অস্ত্রবিরতির সম্ভাবনার মধ্যেই বন্দর শহর হোদেইদাহে ফের দুপক্ষের মধ্যে তীব্র লড়াই শুরু হয়েছে।

সোমবার রাতে শুরু হওয়া এ লড়াইয়ে সহিংসতায় বিরতির সম্ভাবনা খান খান হয়ে গেছে বলে খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

তিন বছরের বেশি সময় ধরে চলা যুদ্ধ ইয়েমেনকে দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে ঠেলে দিয়েছে। এ পরিস্থিতিতে যুদ্ধ শেষ করার লক্ষে সৌদি জোট ও হুতিদের শান্তি আলোচনায় বসানোর চেষ্টা করছে জাতিসংঘ।

এ লক্ষে অনেকটা অগ্রগতিও হয়েছিল। সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট তাদের বাহিনীকে হোদেইদাহে হুতিদের বিরুদ্ধে লড়াই স্থগিত রাখার নির্দেশ দেওয়ার পর সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও তাদের ইয়েমেনি মিত্র বাহিনীর ওপর ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা দিয়েছিল হুতিরা।

এ অবস্থায় শান্তির পথ উন্মুক্ত হচ্ছে বলে যখন ধারণা করা হচ্ছিল তখনই ফের লড়াইয়ের খবর এল। সম্প্রতি ইয়েমেনের যুদ্ধ এ হোদেইদাহ বন্দর শহরটিকে ঘিরেই আবর্তিত হচ্ছিল।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, জোট বাহিনীর যুদ্ধবিমানগুলো হুতিদের অবস্থানে ১০ বারেরও বেশি বার হামলা চালিয়েছে এবং বন্দর থেকে চার কিলোমিটার দূরে ‘জুলাই ৭’ এলাকাগুলোতে দুপক্ষের মধ্যে তীব্র লড়াই চলছে।

শহরটির এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, শহরের কেন্দ্রস্থল থেকে প্রান্তীয় এলাকাগুলো লক্ষ্য করে মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়েছে।

এক টুইটে ইয়েমেনের নির্বাসিত সরকারের তথ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ আল ইরিয়ানি অভিযোগ করে বলেছেন, “হুতিরা সৌদি আরবের দিকে একটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে, কিন্তু সেটি লক্ষ্যে না পৌঁছে ইয়েমেনের ভিতরেই পড়েছে।”

তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে হুতিতের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের মতামত নেওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

হোদেইদাহে নতুন করে যুদ্ধ শুরু হওয়ায় জাতিসংঘের শান্তি আলোচনার প্রচেষ্টা বিফলে যাবে কি না তাৎক্ষণিকভাবে তা পরিষ্কার হয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য